অনলাইন ডেস্কঃ দেশব্যাপী আজ বুধবার (২১ জুলাই) ত্যাগের মহিমায় পালিত হবে পবিত্র ঈদুল আজহা। করোনাকালে এটি চতুর্থ ঈদ। নামাজ আদায় শেষে ত্যাগের মহিমায় পশু কোরবানি দেবেন মুসল্লিরা।

পবিত্র হাদিসের বর্ণনা অনুযায়ী, প্রতি বছর জিলহজ মাসের ১০ তারিখে বিশ্ব মুসলিম ময়দানে নামাজ আদায়ের পর যার যা সাধ্য ও পছন্দ অনুযায়ী পশু কোরবানি দিয়ে থাকেন। আরবি আজহা এবং কোরবান উভয় শব্দের অর্থ হচ্ছে উত্সর্গ।

কোরবানি শব্দের উত্পত্তিগত অর্থ হচ্ছে আত্মত্যাগ, আত্মোৎসর্গ, নিজেকে বিসর্জন, নৈকট্য লাভের চেষ্টা, অতিশয় নিকটবর্তী হওয়া প্রভৃতি।
এদিকে দেশের জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে সকাল ৭টা থেকে পাঁচটি জামাত অনুষ্ঠিত হবে। সকাল ৭টার পর পর্যায়ক্রমে ৮টা, ৯টা, ১০টা ও ১০টা ৪৫ মিনিটে অনুষ্ঠিত হবে জামাতগুলো। নগরবাসীকে নিজ নিজ বাসার কাছের মসজিদে স্বাস্থ্যবিধি মেনে নামাজ পড়তে হবে।
করোনাভাইরাসের ভয়াল থাবায়, গেলো কয়েকটি ঈদের মতো এবারও জাতীয় ঈদগাহ মাঠে অনুষ্ঠিত হচ্ছে না ঈদের জামাত। তবে রাজধানীর বাইরের মাঠগুলোতে স্থানীয় সরকারের অনুমতি সাপেক্ষে জামাত অনুষ্ঠিত হবে।
সেক্ষেত্রে ১২টি স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে। নামাজ শেষে করা যাবে না কোলাকুলি। যাবে না হাত মেলানোও। ঈদের নামাজের জামাতে আগত প্রত্যেক মুসল্লিকে অবশ্যই মাস্ক পরতে হবে।
আর কুরবানির সময়ও স্বাস্থ্যবিধি মানার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। রাস্তায় আবর্জনা বা বর্জ্য না ফেলে নির্দিষ্ট পলিথিনে ফেলার আহ্বান জানানো হয়েছে। সূত্রঃ সময় নিউজ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here