অনলাইন ডেস্কঃ দেশে বাড়ছে টিকার মজুত। মডার্না আর সিনোফার্মের ৪৫ লাখ ডোজ আসার দুই সপ্তাহের মাথায় শনিবার রাতে দেশে এল সিনোফার্মের আরও ২০ লাখ টিকা। এতে আগামী মাস দেড়েকের মধ্যে দেশে দুই কোটির মতো টিকা আসার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে।

টিকার বৈশ্বিক প্লাটফর্ম কোভ্যাক্সের মাধ্যমে সোমবার মডার্নার আরও ৩০ লাখ টিকা আসার কথা। ক্রয় চুক্তির আওতায় আগামী মাসে আসবে সিনোফার্মের আরও ৫০ লাখ টিকা। আর আগস্টেই ফাইজারের ৬০ লাখ টিকা পাঠানোর কথা জানিয়েছে কোভ্যাক্স।

গত ৬ মাসে বিভিন্ন উৎস থেকে দেশে এখন পর্যন্ত আসা টিকার মজুত এক কোটি ৮০ লাখ। যার মধ্যে প্রয়োগ করা হয়েছে এক কোটি ১১ লাখের বেশি ডোজ।
এ ছাড়া অ্যাস্ট্রাজেনেকার দ্বিতীয় ডোজ নিয়ে যে ১৪ থেকে ১৫ লাখ মানুষের মধ্যে অনিশ্চয়তা রয়েছে, তাও কেটে যাওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। ইউরোপ থেকে দেশে আসার অপেক্ষায় কোভ্যাক্সের আওতায় ১০ লাখ অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা। আর ২৯ লাখ অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে জাপান।
এ ছাড়া আগামী মাসে আসতে পারে রাশিয়া থেকে স্পুটনিক ভি। এমন আশাজাগানিয়া চিত্র টিকাদান কর্মসূচিতে গতি রাখবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন  স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক ডা. শামসুল হক। বলেন, অ্যাস্ট্রাজেনেকার যে কয়জন বাদ পড়েছে, খুব তাড়াতাড়ি তারা টিকা পেয়ে যাবে। ওইসব টিকা আমাদের হাতে চলে আসবে।
তবে টিকার মজুদ বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সংরক্ষণাগারের সক্ষমতা বাড়ানোর তাগিদ বিশেষজ্ঞদের।
চলতি বছরের ডিসেম্বরের মধ্যে ১০ কোটি ডোজ টিকার বন্দোবস্ত করা হয়েছে বলে জানান নীতিনির্ধারকরা। সূত্রঃ সময় নিউজ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here