অনলাইন ডেস্কঃ দখলে নেওয়ার কয়েকদিনের মধ্যেই আফগানিস্তানের তিনটি স্থলবন্দরে বাণিজ্যিক কার্যক্রম চালু করেছে তালেবান। একই সঙ্গে সংগঠনটি ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে ‘প্রচুর অর্থ’ টোল হিসেবে আদায় করছে।

হেরাত প্রদেশের বেসরকারি খাতের কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে আফগানিস্তানের গণমাধ্যম টোলো নিউজ এ তথ্য জানায়।

সম্প্রতি হেরাত প্রদেশের তোড়গুন্দি ও ইসলাম কালা সীমান্ত শহর দুটি দখল করে তালেবান। তোড়গুন্দি হয়ে তুর্কমেনিস্তান ও ইসলাম কালা হয়ে ইরানের সঙ্গে বাণিজ্য চালায় আফগানিস্তান। দখলে নেওয়ার পরপরই এসব বন্দর হয়ে বাণিজ্য বন্ধ হয়ে যায়। তবে, দ্রুতই এসব স্থলবন্দরে বাণিজ্যিক কার্যক্রম চালু করলো তালেবান।

হেরাতের চেম্বার অব ট্রেড অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্টের উপপ্রধান সাদ সিদ্দিকী বলেন, জ্বালানি, গ্যাস এবং অন্যান্য পণ্যবহনকারী গাড়িকে ৩০ হাজার আফগানি (৩৭০ মার্কিন ডলার) থেকে ৫০ হাজার আফগানি পর্যন্ত টোল দিতে হচ্ছে।

তবে কতদিন এ টোল আদায় তালেবান অব্যাহত রাখতে পারবে তার নিশ্চিয়তা নেই। কেননা, দ্রুতই নিরাপত্তা বাহিনী এবং গণপ্রতিরোধ বাহিনীর সদস্যরা তালেবানের কবল থেকে এসব এলাকা উদ্ধারে অভিযানে নামতে যাচ্ছে।

অপরদিকে ফারাহ প্রদেশের প্রাদেশিক কাউন্সিলের এক সদস্য বলেন, তালেবান শেখ আবু নাসের ফারাহি স্থলবন্দরও চালু করেছে। এ পথেও ইরানের সঙ্গে বাণিজ্য পরিচালনা করে আফগানিস্তান। এ বন্দর থেকে প্রতিদিন ‘কয়েক মিলিয়ন আফগানি’ আয় করছে তালেবান।

ফারাহ প্রদেশের প্রাদেশিক কাউন্সিলের প্রধান দাদুল্লাহ কানে বলেন, কমান্ডো অপারেশন পরিচালনার মাধ্যমে আমরা সরকারকে সীমান্তবর্তী শহরগুলোর নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার আহ্বান জানাই। এর মাধ্যমে আয়ের উত্সগুলোতে যেন সরকারের নিয়ন্ত্রণ থাকে।

স্থলবন্দরে বাণিজ্য চালুর বিষয়ে তালেবানের মন্তব্য পাওয়া যায়নি। যদিও এর আগে তালেবানের এক মুখপাত্র বলেছিলেন, দ্রুতই দখল করা স্থলবন্দরগুলোতে বাণিজ্যিক কার্যক্রম চালু করা হবে। সূত্রঃ যুগান্তর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here