অনলাইন ডেস্কঃ মাউন্ট মঙ্গানুইয়ে টেস্টের চতুর্থ দিন শেষে চালকের আসনে বাংলাদেশ। পঞ্চম দিনের প্রথম সেশনটাতে বাংলাদেশের বোলাররা ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে পারলে নিউজিল্যান্ডের মাটিতে ইতিহাস গড়া এখন কেবল সময়ের ব্যাপার।

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে চলমান টেস্টের প্রথম ইনিংসে ৭৮ রানের এক দারুণ ইনিংস খেলেছিলেন মাহমুদুল হাসান জয়। কিন্তু হাতের ইনজুরিতে আর এই সফরে ব্যাট হাতেই নামা হবে না তার।

এদিকে দলের সঙ্গে থাকা ফিজিও বায়েজিদ ইসলাম এক ভিডিও বার্তায় জয়ের ইনজুরির কথা জানিয়েছেন। মঙ্গলবার (৪ জানুয়ারি) ফিল্ডিং করার সময় আঙুলে চোট পেয়েছেন জয়। ডাক্তারের পরামর্শে ৭ থেকে ১০ দিন বিশ্রামে থাকতে হবে তাকে।

জয়ের হাতে ৩টি সেলাই দেওয়া হয়েছে বলে জানান বায়েজিদ। তিনি বলেন, জয় আজ ফিল্ডিং করার সময় ডান হাতে চোট পেয়েছে, তৃতীয় ও চতুর্থ আঙুলের মাঝখানে। এখানে যিনি চিকিৎসক ছিলেন তিনি সেলাই করে দিয়েছেন। ৩টা সেলাই পড়েছে। ওকে এখন ৭ থেকে ১০ দিন পর্যবেক্ষণে থাকতে হবে। যা যা চিকিৎসা দরকার দেওয়া হয়েছে। এখন পুনর্বাসন করা হবে।

যার মানে দাঁড়াচ্ছে, বুধবার (৫ ডিসেম্বর) ম্যাচের শেষ দিনে দ্বিতীয় ইনিংসেও জয়কে পাচ্ছে না বাংলাদেশ। এছাড়া স্বাগতিকদের বিপক্ষে আগামী ৯ জানুয়ারি (রোববার) থেকে শুরু হতে যাওয়া দ্বিতীয় টেস্টে খেলা হবে না এই তরুণ ব্যাটারের।

এদিকে, জয়ের ইনজুরির ফাইনাল রিপোর্ট আসেনি, তবে দ্বিতীয় টেস্টে খেলার চান্স খুব কম বলে জানিয়েছেন হাবিবুল বাশার সুমন। তিনি আরও বলেন, নাঈম শেখ তৃতীয় ওপেনার হিসেবে ওখানে আছে। তাই বদলি খেলোয়াড়েরও প্রয়োজন নেই।

এবাদতের দুই ওভারের ঝলকে চতুর্থ দিন শেষে চালকের আসনে বাংলাদেশ। ক্যাচ মিস এবং বাজে রিভিউ নেয়ার ফলে একসময় যখন ভাবা হচ্ছিল ম্যাচটা হাত থেকে ফসকে যাচ্ছে, তখনই ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দেন এবাদত হোসেন। চতুর্থ দিন শেষে নিউজিল্যান্ডের সংগ্রহ ৫ উইকেটে ১৪৭ রান, বাংলাদেশ থেকে এগিয়ে আছে ১৭ রানে।

এর আগে ডেভন কনওয়ে আউট হওয়ার পর পিচে মন্থর হয়ে ব্যাট করতে থাকে অভিজ্ঞ রস টেইলর এবং উইল ইয়াং। অর্ধশতক পূর্ণ করে ভালোই এগোচ্ছিলেন তিনি। তবে ব্যক্তিগত ৬৯ রানে কাঁটা পরেন তিনি। টেইলরকে নিয়ে ইয়াংয়ের ৭৩ রানের জুটি ভাঙার পর অনেকটা ভেঙ্গে পরে কিউই দল। এখন দিন শেষের অপেক্ষায় স্বাগতিকরা।

এদিকে এবাদতের ২ ওভারে ৩ উইকেট নেয়ার পর ম্যাচে ফিরেছে টাইগাররা। এবাদতের প্রথম দুই উইকেট ৩ বলের বিনিময়ে নেয়ার পর এরপরের ওভারেই আরেকটি উইকেট নিয়ে কিউই ব্যাটসম্যানদের চাপে রাখেন তিনি একাই।

এদিকে, দিনের শুরুতে দুইবার এলবিডব্লিউতে মেহেদী মিরাজকে আউট দিয়েছিলেন আম্পায়ার। তবে রিভিউ নেয়ার কারণে মাঠ ছাড়তে হয়নি মিরাজকে। তবে শেষ রক্ষা হয়নি। টিম সাউদির বাইরের একটি বলে খোঁচা মেরে কিপার টম ব্লানডেলের হাতে ক্যাচ তুলে প্যাভিলিয়নে ফেরেন মেহেদি। এর পরে একে একে ইয়াসির আলী,তাসকিন এবং শরিফুলের উইকেট হারায় বাংলাদেশ। শেষ পর্যন্ত ৪৫৮ রানে থামে টাইগারদের ইনিংস। সূত্রঃ সময় নিউজ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here