অনলাইন ডেস্কঃ গত ৬ বছরে সৌদি আরবের ভূখণ্ডে ৪৩০টি মিসাইল ছুঁড়েছে হুতিরা। এই সময়ে ড্রোন হামলা চালানো হয়েছে সাড়ে আটশোরও বেশি। রোববার (২৬ ডিসেম্বর) এই তথ্য তুলে ধরেন সৌদি নেতৃত্বাধীন জোটের মুখপাত্র তুর্কি আল-মালিকি। তিনি বলেন, শুধু হুতি বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধেই নয়, ইরানের বিপ্লবী গার্ড এবং হিজবুল্লাহকে সামাল দিতে হচ্ছে।

২০১৪ সালে ইয়েমেনের তৎকালীন সরকার মনসুর হাদিকে ক্ষমতা থেকে উৎখাত করে দেশটির হুতি বিদ্রোহী গোষ্ঠী। হাদি সরকারের সমর্থনে ২০১৫ সাল থেকে হুতিদের বিরুদ্ধে সামরিক অভিযান চালিয়ে আসছে সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট। এরপর থেকেই দুই পক্ষের মধ্যে চলছে দফায় দফায় বিমান হামলার ঘটনা। সৌদি জোট গেলো ৬ বছরে নিজেদের ভূখণ্ডে হুতিদের হামলার তথ্য তুলে ধরে অভিযোগ জানায়, হুতিদের ছোঁড়া প্রায় ১৩’শ মিসাইল ও ড্রোন হামলায় মারা গেছে ৫৯ বেসামরিক নাগরিক।

সৌদি আরবের অভিযোগ, হুতিদের অস্ত্র এবং প্রশিক্ষণ দিয়ে সমর্থন জোগাচ্ছে ইরান এবং লেবাননের সশস্ত্র সংগঠন হিজবুল্লাহ। তুর্কি আল-মালিকি আরও বলেন, শুধু হুতিই নয়, ইরানের ইসলামিক বিপ্লবী গার্ড বাহিনী এবং লেবাননের হিজবুল্লাহদের বিরুদ্ধেও আমাদের যুদ্ধ করতে হচ্ছে। তাই নিজেদের ভূখণ্ড রক্ষায় সব সময় প্রস্তুত থাকতে হবে সব বাহিনীকে।

রিয়াদের এসব অভিযোগের বিষয়ে কোনো মন্তব্য করেনি হুতি গোষ্ঠী। তবে বিদ্রোহীদের দমনের নামে ইয়েমেনের বেসামরিক নাগরিকদের হত্যার দায়ে পশ্চিমাদের চাপে রয়েছে সৌদি জোট। তথ্য বলছে, ইয়েমেনে গেলো ৬ বছরের সংঘাতে মারা গেছে সাড়ে ৩ লাখের কাছাকাছি মানুষ। সূত্রঃ যমুনা নিউজ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here