অনলাইন ডেস্কঃ এটি বাস, এটি ট্রেনও! মূলত এটি একটি ডিএমভি (ডুয়েল মোড ভেহিকেল) । বিশ্বের প্রথম দ্বৈত-মোড এই গাড়ি সড়ক ও রেলপথে সমানভাবে চলবে। আজ শনিবার জাপানের তোকুশিমা প্রিফেকচারের কাইয়ো শহরে এর যাত্রা শুরু হয়েছে।

ডিএমভি দেখতে একটি মিনিবাসের মতো। গাড়িটি রাস্তায় সাধারণ রাবারের টায়ারে চলে। কিন্তু যখন এটি রেললাইনে পৌঁছায়, তখন ইস্পাতের চাকা গাড়ির নিচের অংশ থেকে রেল ট্র্যাকের ওপর নেমে আসে। তখন কার্যকরভাবে এটিকে একটি ট্রেনের ক্যারেজে পরিণত করে। আর ট্রেনের চাকাগুলো সামনের টায়ারগুলোকে রেলট্র্যাক থেকে তুলে দেয়।

ডিএমভিগুলো পরিচালনাকারী আশা কোস্ট রেলওয়ে কোম্পানির সিইও শিগেকি মিউরা বলেছেন, যানবাহনগুলো কাইয়োর মতো ছোট শহরগুলো তথা এই বাহন বিশেষ করে গ্রামীণ জনপদের জন্য খুবই কার্যকর হবে। আশা করছি, আগামী দিনের জন্য এটি হবে সবচেয়ে সেরা গণপরিবহন।

দেশটির উদ্ভাবকরা বলেছেন, ডিএমভি নামের এই গাড়িটি রেললাইনে চলতে পারবে ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ৬০ কিলোমিটার গতিতে। আর সড়কে উঠলে এর গতি হবে ঘণ্টায় ১০০ কিলোমিটার। সড়ক থেকে রেললাইনে চলাচলের উপযোগী হতে গাড়িটির সময় লাগে মাত্র ১৫ সেকেন্ড। সুইচের মাধ্যমে পরিবর্তন হবে ইস্পাতের চাকায়। ছোট আকারের বিশেষ এই বাহনে চড়তে পাবরে চালকসহ মাত্র ২৩ আরোহী।

ডিজেলচালিত এই বাস প্রাথমিকভাবে চলবে টোকুশিমা থেকে কোচি শহর পর্যন্ত দেড়শ কিলোমিটার পথে। এই  প্রকল্পের কাজ শুরু হয়েছিল ২০০২ সালে। সূত্রঃ বিডি প্রতিদিন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here