অনলাইন ডেস্কঃ পাকিস্তানের ঘরোয়া লিগ কায়েদ-এ-আজম ট্রফির ফাইনালের আগেই বির্তকিত এক ঘটনা ঘটেছে দেশটির ক্রিকেটে।

রীতিমতো পাঁচ তারকা হোটেল থেকে বের করে দেওয়া হয়েছে দুই ফাইনালিস্ট দলের ক্রিকেটারদের।

বুধবার গভীর রাতে ক্রিকেটারদের জামাকাপড় এবং ক্রিকেট কিটসহ হোটেল থেকে বাইরে বের করে দেওয়া হয়। এতে জৈব সুরক্ষা বলয়ও গেছে ভেঙে।

এ ঘটনায় ক্রিকেটারদের কোনো অপরাধ না থাকলেও এমন ভোগান্তির শিকার হলেন তারা।

পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যমগুলো জানাচ্ছে, হোটেলে অবস্থান নিয়ে আগাম বুকিং না দেওয়ায় ক্রিকেটারদের বের করে দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। ক্লাব রোডে অবস্থিত পাঁচ তারকা হোটেলটি ২২ ডিসেম্বর পর্যন্ত ভাড়া নিয়েছিল পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। কিন্তু দুই দলের খেলোয়াড়দের যে ফাইনাল খেলার জন্য সেই হোটেলেই থাকতে হবে, সে বিষয়ে কোনো ব্যবস্থা নেয়নি বোর্ড।

অথচ আর মাত্র ২ দিন পরই তথা ২৫ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে ফাইনাল। শিরোপার লড়াইয়ে নামার আগেই এমন ভোগান্তিতে পড়তে হয়েছে নর্দার্ন পাকিস্তান ও খাইবার পাখতুন দলের ক্রিকেটারদের।

এমন অঘটনের বিষয়ে পিসিবির একটি সূত্র জানিয়েছে, ২২ ডিসেম্বরের পরে ওই হোটেলে বুকিং নিশ্চিত করা যাচ্ছিল না। বিষয়টি নিয়ে পরে হোটেল ম্যানেজম্যান্টের সঙ্গে পিসিবির কোনো কর্মকর্তা আলাপও করেনি। পিসিবি ধরে নিয়েছিল, তাদের বুকিং নিশ্চিত হয়ে গেছে। আর অন্যদিকে হোটেল ম্যানেজম্যান্ট ভেবেছে, ২২ তারিখের পর আর থাকবে না ক্রিকেটাররা।

এদিকে ওই হোটেলে অন্য একটি বড় গ্রুপ চলে আসায় ক্রিকেটারদের থাকার কক্ষগুলো বুকিং দিয়ে দেয়া হয়। তাই বুধবার রাতে তাদের বের করে দেওয়া ছাড়া আর কোনো পথ ছিল না হোটেল কর্তৃপক্ষের। সূত্রঃ যুগান্তর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here