অনলাইন ডেস্কঃ ট্যাক্স ফাঁকি দেয়ার অভিযোগে চীনের ইন্টারনেট সেলিব্রেটি হুয়াং ওয়েইকে (ভিয়া) ২১০ মিলিয়ন ডলার জরিমানা করেছে চীনা সরকার। ইন্টারনেট সেলিব্রেটি ভিয়ার বিশ্বজুড়ে প্রায় দুই কোটি ফলোয়ার রয়েছে। তিনি নিজের প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে বিভিন্ন রকম পণ্যের বিক্রি অনুমোদন করে থাকেন।

খবরে বলা হয়েছে, ২০১৯ ও ২০২০ এই দু’বছরে হুয়াং ওয়েই ৬৪৩ মিলিয়ন ইয়ান ট্যাক্স ফাঁকি দিয়েছেন। ফলে দেশটির হ্যাংঝৌ কর্তৃপক্ষ তাকে ব্যক্তিগত আয় ও অন্যান্য আর্থিক অপরাধ লুকানোর অভিযোগ এনেছে।

 

এদিকে জরিমানা পরে চীনের জনপ্রিয় সামাজিক ওয়েবসাইট ওয়েইবোতে দেয়া এক পোস্টে হুয়াং ওয়েই ক্ষমা চেয়েছেন। তিনি লিখেছেন, আয়কর কর্তৃপক্ষ আমাকে যে শাস্তি দিয়েছে তা পূর্ণাঙ্গভাবে মেনে নিচ্ছি। ৩৬ বছর বয়সী ভিয়া চীনে ইন্টারনেট জগতে ব্যাপক জনপ্রিয় তারকা। সম্প্রতি অনলাইনে কেনাকাটা ভীষণভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। ফলে তার অনুসারীর সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধিই পাচ্ছে। তা থেকে তার আয়ও বাড়ছে। এ জন্য তিনি চীনে ‘লাইভ-স্ট্রিমিং কুইন’ নামেও পরিচিতি পেয়েছেন।

চীনের রাষ্ট্রীয় মুখপত্র দ্য গ্লোবাল টাইমস বলেছে, তাকে এই শাস্তি দেয়ার মধ্য দিয়ে অন্যদের সতর্ক করা হয়েছে। গত মাস থেকেই ইন্টারনেটে এই শিল্পে সংস্কার করছে চীন এমন খবর ছড়িয়ে পড়ে। বিশ্বের মধ্যে সবচেয়ে বড় লাইভ-স্ট্রিমিং শিল্প রয়েছে চীনে। দেশটিতে আছেন কমপক্ষে ৪০ কোটি ভ্লগার বা ভিডিও ব্লগার। গত মাস থেকে সেখানে প্রভাবশালীদের অনলাইনে নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

৮৮ জন সেলিব্রেটিকে দেয়া হয়েছে সতর্কতা। লাইভ-স্ট্রিমিং করেন এমন আরও দু’জন ঝু চেনহুই এবং লিন শানশান’কে যথাক্রমে এক কোটি ২ লাখ এবং ৪৩ লাখ ডলার জরিমানা করা হয়েছে। ওয়েইবো থেকে তাদের একাউন্ট মুছে দেয়া হয়েছে। দ্য চায়না ডেইলি রিপোর্ট করেছে, যারা আয়কর ফাঁকি দিয়েছেন তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত ও শাস্তির বিধান জোরালো করা হয়েছে। এটা করা হয়েছে আয়করে একটি সুষ্ঠু পরিবেশ ফেরানোর জন্য। সূত্রঃ বিডি প্রতিদিন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here