অনলাইন ডেস্কঃ ধ্বংসস্তূপে আটকা পড়ায় মৃতের সংখ্যা আরও বাড়ার আশঙ্কা করছে কর্তৃপক্ষ। টাইফুনের প্রভাবে বিভিন্ন এলাকায় ভারি বৃষ্টিপাতে বন্যা দেখা দিয়েছে। টাইফুন ‘রাই’-এর আঘাতে বিধ্বস্ত ফিলিপিন্সের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চল।

 
ঘণ্টায় ১৯৫ কিলোমিটার বেগে শক্তিশালী টাইফুনের তাণ্ডবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে অসংখ্য বাড়িঘর। উপড়ে গেছে শত শত গাছপালা। বিদ্যুত বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছেন অর্ধ লাখ মানুষ। 
 
ঝড়ের প্রভাবে বিভিন্ন এলাকায় ভারি বৃষ্টিপাত ও বন্যা দেখা দিয়েছে, এতে ব্যাহত হচ্ছে যান চলাচল। ফেরি ও কার্গো জাহাজের কর্মীসহ, দক্ষিণ ও মধ্যাঞ্চলের বন্দরগুলোতে আটকা পড়েছেন হাজার হাজার মানুষ।
তবে প্রাণহানির আশঙ্কায় উপকূলের কয়েক হাজার বাসিন্দাসহ এক লাখ মানুষকে বিভিন্ন আশ্রয়কেন্দ্রে সরিয়ে নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে প্রশাসন। ঝুঁকিপূর্ণ এলাকাগুলোতে স্কুল-অফিস বন্ধ করে দেয়াসহ বেশিরভাগ অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট বাতিল করেছে প্রশাসন। লোকজনকে সমুদ্র ভ্রমণ থেকে বিরত থাকারও নির্দেশ দিয়েছে কর্তৃপক্ষ।
 
আবহাওয়া অফিস বলছে, চলতি বছর দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার সবচেয়ে শক্তিশালী টাইফুনের কবলে পড়েছে দেশটি। এর প্রভাবে অন্তত ১ কোটি ৩০ লাখ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে বলে ধারণা করছে জাতিসংঘ।
 
ফিলিপিন্সে প্রতি বছর অন্তত ২০টির মত ঝড় ও টাইফুন আঘাত হানে। রিং অব ফায়ার অর্থাৎ প্রশান্ত মহাসাগরে ভূমিকম্প বা আগ্নেয়গিরি বিস্ফোরণের ঝুঁকিপূর্ণপ্রবণ এলাকার কাছাকাছি অবস্থান হওয়ায় বিশ্বের প্রাকৃতিক দুর্যোগ কবলিত দেশগুলোর মধ্যে অন্যতম ফিলিপিন্স। সূত্রঃ সময় নিউজ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here