অনলাইন ডেস্কঃ প্রেমের প্রস্তাব ফিরিয়ে দেয়ায় তরুণীর ওপর নির্যাতনের ঘটনা নতুন নয়। মাঝেমধ্যেই শিরোনামে জায়গা করে নেয় এই ধরনের ঘটনা। তবে বিয়ের প্রস্তাব ফেরানোয় প্রেমিকের ওপর পাল্টা হামলার ঘটনা কিছুটা হলেও বিরল। এমনই ঘটনার সাক্ষী ভারতের পশ্চিমবঙ্গের কাটোয়া অঞ্চলের সার্কাস ময়দান। বিয়ে করতে রাজি না হয় প্রায় ৩-৪ বছরের প্রেমিককে লক্ষ্য করে গুলি চালাল তরুণী। ঘটনার পর পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টাও করে সে। তবে শেষরক্ষা হয়নি। পুলিশ ওই তরুণীকে আটক করেছে। কোথা থেকে বন্দুক পেল সে, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। খবর সংবাদ প্রতিদিনের।

প্রতিবেদন সূত্রে জানা যায়, গুলিবিদ্ধ যুবকের নাম লালচাঁদ শেখ। পেশায় রং মিস্ত্রি। গত ৩-৪ বছর যাবত স্থানীয় এক তরুণীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক ছিল তার। দুই পরিবারই সম্পর্কের কথা জানত। সাবির এবং ওই তরুণীর যে বিয়ে হবে, তা মোটামুটি দুই বাড়ি থেকে ঠিকঠাকও ছিল। ইতোমধ্যেই কর্মসূত্রে ভারতের ঝাড়খণ্ডে চলে যান তরুণী। সেই সময় যদিও দু’জনের যোগাযোগ ছিল। ফোনে কথা হত নিয়মিত। তবে ঝাড়খণ্ড থেকে ফেরার পর থেকেই লালচাঁদ এবং ওই তরুণীর সম্পর্কের অবনতি হয়।

গত মঙ্গলবার (১৪ ডিসেম্বর) ঝাড়খণ্ড থেকে নিজের বাড়িতে ফেরে তরুণী। প্রেমিক লালচাঁদ শেখের দাবি, ওই তরুণীর বুধবার (১৫ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় তার সঙ্গে দেখা করতে চায়। সার্কাস পাড়ায় দু’জনে দেখা করার সিদ্ধান্ত নেয়। নির্দিষ্ট সময়ে দু’জনেই সার্কাস পাড়ায় চলে আসে। দেখা হওয়ার পর প্রেমিকা তাকে চুম্বন করে বলেই দাবি যুবকের। এরপর কিছু বুঝে ওঠার আগেই তরুণীর তার পেটের কাছে গুলি চালায় বলেই অভিযোগ যুবকের।

গুলির শব্দে স্থানীয়রা বাড়ি থেকে বেরিয়ে দেখেন রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে আছেন ওই যুবক। ততক্ষণে অবশ্য ওই তরুণী ঘটনাস্থল ছেড়ে চলে যায়। পরবর্তীতে লালচাঁদকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তবে তার শারীরিক অবস্থা আপাতত স্থিতিশীল। সূত্রঃ যমুনা নিউজ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here