অনলাইন ডেস্কঃ বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচি (ডব্লিউএফপি)সতর্ক করে বলেছে আফগানিস্তানের ২ কোটি ২৮ লাখ মানুষ দুর্ভিক্ষের ঝুঁকিতে আছে। তবে তালেবান সরকারের উপ-প্রধানমন্ত্রী আব্দুল সালাম হানাফি এমন দাবি প্রত্যাখান করে বলেছেন, আফগানিস্তানের কোনো মানুষ অনাহারে মারা যাবে না।

গত মাসে বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচির আফগানিস্তান বিষয়ক প্রধান ম্যারি অ্যালেন ২০ বছরের যুদ্ধপীড়িত দেশটিতে ভ্রমণ করেন। সেখানে তিনি বিভিন্ন অঞ্চল পরিদর্শন করেন। দু’দিন আগে ম্যারি অ্যালেন বলেন, অর্ধেকের বেশি আফগান অনাহারের ঝুঁকিতে  রয়েছে।  দেশটির ৩০ লাখ শিশু এখন অপুষ্টিতে ভুগছে।

তবে তলেবান সরকারের উপ-প্রধানমন্ত্রী আব্দুল সালাম হানাফি বলছেন, তিনি এই সংখ্যার সঙ্গে একমত নন। এখন পর্যন্ত অনাহারে আফগানিস্তানের কোনো নাগরিক মারা যায়নি বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

যদিও এই তালেবান নেতা স্বীকার করেন, যুদ্ধ এবং খরার কারণে অনেকে দরিদ্রতার মধ্যে দিন কাটাচ্ছে। তবে তাদের অনাহারের মরার মতো অবস্থা হয়নি এবং এ বিষয়ে উদ্বেগের কিছু নেই।

আফগানিস্তানের দরিদ্রতা লাঘবে মুসলিম দেশগুলোর সহায়তা করা দায়িত্ব উল্লেখ করে হানাফি বলেন,  ধীরে ধীরে দেশের অর্থনৈতিক অবস্থার উন্নতি ঘটছে। প্রতিবেশী এবং আঞ্চলিক দেশগুলো বিভিন্ন সেক্টরে বিনিয়োগ করতে আগ্রহ দেখাচ্ছে। এ সময় তিনি নিজস্ব উপার্জনে দেশের সকল প্রয়োজন মেটানোর সক্ষমতা সরকারের আছে বলে দাবি করেন।

প্রসঙ্গত, তালেবান রাষ্ট্রক্ষমতায় আসার পরপরই বিদেশি অর্থসহায়তা বন্ধ হয়ে যায়। এ কারণে আফগানিস্তান চরম মানবিক ও অর্থনৈতিক সংকটে পড়েছে। ভঙ্গুর অর্থনীতি আরও ভেঙে পড়ায় কোটি কোটি মানুষ তীব্র ক্ষুধার মুখে পড়েছে। এতে করে দেশটিতে একসময়ের সচ্ছল মধ্যবিত্ত পরিবারগুলোও এখন নিঃস্ব হয়ে পড়েছে। সূত্রঃ যুগান্তর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here