অনলাইন ডেস্কঃ যুক্তরাজ্যে প্রথমবারের মতো করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনে আক্রান্ত হয়ে একজনের মৃত্যু হয়েছে। বিবিসি সোমবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন সোমবার এ মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করে জানান, যুক্তরাজ্যে ওমিক্রন আক্রান্ত হয়ে অনেকে হাসপাতালেও ভর্তি হচ্ছে।

তিনি বলেন, দুঃখের সঙ্গেই জানাচ্ছি, ওমিক্রনে আক্রান্ত হয়ে মানুষজন হাসপাতালে যাচ্ছে এবং অন্তত একজন রোগীর মৃত্যু হয়েছে।

ওমিক্রনকে মৃদু ধরন ভাবা উচিত নয় উল্লেখ করে জনসন বলেন, এই সংক্রমণ থেকে বাঁচতে মানুষজনের জন্য টিকার বুস্টার ডোজ নেওয়াই সবচেয়ে সর্বোত্তম উপায়।

বিজ্ঞানবিষয়ক সাময়িকী নেচারের অনুসারে, ওমিক্রন ধরন প্রথম আফ্রিকার দেশ বতসোয়ানায় শনাক্ত হয়। এরপর করোনার এই ধরন আফ্রিকার আরও কয়েকটি দেশে ছড়িয়ে পড়ে। এই দেশগুলোর মধ্যে রয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা, অস্ট্রেলিয়া, অস্ট্রিয়া, বেলজিয়াম, কানাডা, চেক প্রজাতন্ত্র, ডেনমার্ক, ফ্রান্স, জার্মানি, হংকং, ইসরাইল, ইতালি, জাপান, নেদারল্যান্ডস, পর্তুগাল, স্পেন, সুইডেন, যুক্তরাজ্য, নাইজেরিয়া।

নতুন ধরন ছড়ানো শুরুর পর থেকে আফ্রিকার দেশগুলোর ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করছে বিভিন্ন দেশ।
সিএনএনের খবরে বলা হয়েছে, এই রেজিমেন্টের বিস্তার ঠেকাতে কমপক্ষে ৭০টি দেশ ও অঞ্চল আফ্রিকার বেশ কয়েকটি দেশের ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে।

ওমিক্রন সম্পর্কে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে, যারা আগে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন, তারাও ওমিক্রনে আক্রান্ত হতে পারেন। যদিও কতটা সংক্রামক তা এখনও স্পষ্ট নয়। আরটি-পিসিআর পরীক্ষা এই রূপকে দ্রুত ধরতে সক্ষম বলে জানিয়েছে ডব্লিউএইচও।

এই ভাইরাসের ওপর কোভিড টিকার কার্যকারিতা কতটা তা জানার জন্য গবেষণা চলছে বলেও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে। সূত্রঃ যুগান্তর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here