অনলাইন ডেস্কঃ আজ ঐতিহাসিক ৬ ডিসেম্বর। ১৯৭১ সালের এ দিনে স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে বাংলাদেশকে প্রথম স্বীকৃতি দিয়েছিল ভুটান ও ভারত।

ইতিহাসবিদদের মতে, এ স্বীকৃতির পর থেকেই আন্তর্জাতিক মহলে গ্রহণযোগ্যতা পেতে শুরু করে বাংলাদেশ। গণতন্ত্র ও মানবতার বৈশ্বিক ইতিহাসে অসামান্য তাৎপর্য বহন করছে এ দিনটি।

৪৭-এর দেশ ভাগের ফলস্বরূপ পাকিস্তানের অংশ হওয়ার পর থেকেই শোষণ-নিপীড়নের শিকার হয়ে আসছিল পূর্ববঙ্গের জনসাধারণ। অচিরেই পাকিস্তানের নব্য উপনিবেশিক শাসনকে পরাস্ত করার প্রয়োজনীয়তা উপলব্ধি করে দেশের মানুষ। এর ধারাবাহিকতায় ৫২, ৬৬, ৬৯ পেরিয়ে ৭১-এ বঙ্গবন্ধুর ডাকে মুক্তি সংগ্রামে শামিল হয় আপামর জনতা।

দীর্ঘ ৯ মাসের মহান মুক্তিযুদ্ধে বাংলাদেশকে স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দিতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে চিঠি পাঠায় মুজিবনগর সরকার। তবে আশানুরূপ সাড়া না পাওয়ায় ৭১ এর ৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত অধরাই থেকে যায় বাংলাদেশের কাঙ্ক্ষিত স্বাধিকারের স্বীকৃতি। ৬ ডিসেম্বর ভুটান এবং ভারত বাংলাদেশকে প্রথমবারের মতো স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দেয়।

ভারতের দৈনিক পত্রিকার তথ্য মতে, সেদিন সংসদে দাঁড়িয়ে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী বাংলাদেশের স্বীকৃতি ঘোষণা করলে উল্লাসে ফেটে পড়েন সংসদ সদস্যরা। জয় বাংলা স্লোগানে সেদিন মুখর হয়ে ওঠে ভারতের সংসদ।

ইতিহাসবিদদের মতে, এ দিনটি বাংলাদেশের জন্য অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। সেদিনই আন্তর্জাতিক মহলে গ্রহণযোগ্য হয়ে ওঠে লাল সবুজের পতাকা।

ভারত সরকারকে অভিনন্দন জানিয়ে মুজিবনগর সরকার বলে, এ স্বীকৃতি মানবতা ও গণতন্ত্রের। কেবল বাংলাদেশ নয়, বিশ্বের ইতিহাসে অসামান্য তাৎপর্যপূর্ণ একটি দিন হিসেবে জ্বলজ্বল করছে ৬ ডিসেম্বর। সূত্রঃ সময় নিউজ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here