অনলাইন ডেস্কঃ কাবুলে বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত ফেরার জন্য নিরাপত্তাসহ বেশ কিছু বিষয়ের সমাধানে উদ্যোগী হচ্ছে  ইউরোপীয় কয়েকটি দেশ। এ জন্য আফগানিস্তানে যৌথ কূটনৈতিক মিশন খোলার কথা বিবেচনা করছে তারা।

ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ কাতারে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এসব কথা জানিয়েছেন। খবর আল জাজিরার।

আফগানিস্তানে শিগগিরই ইউরোপের কূটনৈতিক মিশন প্রতিষ্ঠার ব্যাপারেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি। তবে এর মানে তালেবানকে রাজনৈতিক স্বীকৃতি দেওয়া নয় বলেও জানিয়েছেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট।

শুক্রবার ফ্রান্স জানিয়েছে, কাতারের সহায়তায় আফগানিস্তান থেকে তিন শতাধিক মানুষকে সরিয়ে নিয়েছে তারা। এদের বেশিরভাগই আফগান নাগরিক।

এদিকে বিগত ২০ বছরে সর্বনিম্ন মৃত্যুর সপ্তাহ পার করল আফগানিস্তান।

সেপ্টেম্বরের আগে আফগানিস্তানে সরকারি বাহিনী ও তালেবানের সঙ্গে ব্যাপক সংঘর্ষ চলছিল। এই সময় আফগানিস্তান প্রতিদিন কয়েক ডজন প্রাণহানী লক্ষ্য করেছে। ১৫ আগস্ট আশরাফ গনির বিদেশ পলায়নের মাধ্যমে দেশটিতে যুদ্ধ শেষ হয়। তালেবান অন্তর্বর্তী সরকার গঠন করে।

তালেবান ক্ষমতা গ্রহণের পর আফগানিস্তানে তিনটি বড় ধরনের হামলা হয়।

তিনটি হামলার একটি রাজধানী কাবুল, দ্বিতীয়টি কুন্দুজ এবং তৃতীয়টি কান্দাহার প্রদেশে। এসব হামলায় ৫৬১ জন হতাহত হয়।

বিশ্বব্যাপী নিষিদ্ধ ইসলামি গোষ্ঠী আইএস খোরাসান শাখা সব হামলার দায় স্বীকার করে।

এর পর গত তিন মাসে আফগানিস্তানে প্রতি সপ্তাহে গড়ে ২৬ জন মানুষ হতাহত হয়েছে। পরে আফগানিস্তানে মৃত্যুর সংখ্যা কয়েক গুণ কমতে থাকে। গত সপ্তাহে সর্বনিম্ন মৃত্যু দেখেছে দেশটি। সূত্রঃ যুগান্তর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here