অনলাইন ডেস্কঃ বাংলাদেশকে ৩৫০ রানের মধ্যে আউট করার লক্ষ্য নিয়ে মাঠে নামা পাকিস্তান তাদের প্রথম টার্গেট পূরণ করেছে। তারপর নিজেরা ব্যাটিংয়ে নেমে দারুণ শুরু করেছে তারা। চা বিরতিতে যাওয়ার আগে পাকিস্তানের সংগ্রহ বিনা উইকেটে ৭৯ রান। ফিফটি করেছেন আবিদ আলি।

এদিকে প্রথম দিনে দাপট দেখিয়ে দ্বিতীয় দিনের প্রথম সেশনেই গুটিয়ে যায় বাংলাদেশ ইনিংস। দ্বিতীয় দিন ২৫৩ রান ৪ উইকেটে নিয়ে খেলতে নামা বাংলাদেশ গুটিয়ে যায় ৩৩০ রানে। পাকিস্তানের হয়ে ৫ উইকেট তুলে নেন হাসান আলি।

প্রথম দিনে শতক করেছিলেন লিটন দাস। তখন ৮২ রানে অপরাজিত ছিলেন মুশফিক। সবার আশা ছিল দ্বিতীয় দিনে নিজের শতক পূর্ণ করবেন মুশি। তবে সেটি আর হয়নি। নার্ভাস নাইনটিতে আউট হন তিনি। ফাহিম আশরাফের বলে উইকেটরক্ষকের কাছে ক্যাচ তুলে দেন মুশফিক। মুশফিক আউট হয়েছেন ৯১ রানে। মেহেদী হাসান মিরাজ ছিলেন ৩৮ রানে অপরাজিত। মেহেদী বাদে কেউ ক্রিজে বেশিক্ষণ টিকতে পারেনি, যার ফলে ৩৩০ রানেই গুটিয়ে যায় টাইগারদের ইনিংস।

এর আগে দ্বিতীয় দিনের দ্বিতীয় ওভারেই প্রথম দিনের শতক করা লিটন দাসকে হারায় বাংলাদেশ। লিটন-মুশফিকের ২০৪ রানের জুটি ভাঙ্গে হাসান আলি। লিটনকে এলবিডব্লিউ করেন হাসান আলি। এরপর ব্যাটিংয়ে নেমে ৪ রানে সাজঘরে ফেরেন টেস্টে অভিষেক হওয়া ইয়াসির আলি। তবে এক প্রান্ত ধরে খেলতে থাকেন বিশ্বকাপে সমালোচনায় পরা মুশফিকুর রহিম। তবে নিজের শতক পূরণ করার আগেই সাজঘরে ফেরেন মুশফিক।

এদিকে পাকিস্তানের হয়ে দিনের শুরুটা দারুণ করেন হাসান আলি। প্রথম দুই উইকেটের দুটিই তুলে নেন তিনি। এরপর আরও দুই উইকেট নিয়ে ৫ উইকেট তুলে নেন তিনি। প্রথমে লিটনকে এলবিডব্লিউ করেন। এরপর ইয়াসির আলিকে বোল্ড করেন। সূত্রঃ সময় নিউজ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here