অনলাইন ডেস্কঃ আফগানিস্তানের তালেবান শাসকদের সমর্থন জানিয়েছেন হাজারেরও বেশি শিয়া হাজারা। বৃহস্পতিবার (২৬ নভেম্বর) তারা জানিয়েছেন, দেশের ক্ষমতায় ইসলামপন্থীদের ফিরে আসার মাধ্যমে পশ্চিম-সমর্থিত সরকারের অন্ধকার যুগের অবসান হয়েছে।

বহু কাল ধরে হাজারা সম্প্রদায়ের লোকজনকে হত্যা ও নির্যাতন করে আসছেন ইসলামপন্থীরা। কিন্তু এবার কাবুলে তালেবান নেতাদের পাশে দাঁড়িয়ে হাজারা সম্প্রদায়ের জ্যেষ্ঠ নেতারা নতুন সরকারকে সমর্থন জানিয়েছেন।-খবর ডন অনলাইনের

বৃহস্পতিবার একটি সমাবেশে সাবেক আইনপ্রণেতা ও জ্যেষ্ঠ হাজারা নেতা জাফর মাহদায়ী বলেন, সাবেক প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনির শাসনে ইতিহাসের সবচেয়ে অন্ধকারময় সময়টি পার করেছে আফগান জনগণ। তখন আফগানিস্তানের কোনো স্বাধীনতা ছিল না। সরকারের প্রতিটি ক্ষেত্র বিদেশি দূতাবাসের নিয়ন্ত্রণে ছিল।

তালেবানের শাসনের মাধ্যমে আফগানিস্তান সেই অন্ধকার সময় কাটিয়ে ওঠেছে দাবি করে তিনি স্রষ্টার প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন। জাফর মাহদায়ী বলেন, মধ্য-আগস্টে তালেবান ক্ষমতায় আসার পর তারা যুদ্ধের অবসান ঘোষণা করেছেন। দুর্নীতি বন্ধ করে নিরাপত্তাও জোরদার করা হয়েছে।

তবে তালেবানের কাছে আরও অন্তর্ভুক্তিমূলক সরকার গঠনের দাবি করে মেয়েদের জন্য স্কুল খুলে দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন এই হাজারা নেতা।

আফগানিস্তানের নতুন সরকারকে ‘অন্তবর্তীকালীন’ বলে দাবি করছে তালেবান। নতুন সরকারের সবাই পশতুন ও এতে কোনো নারী নেই। সমাবেশে তালেবান মুখপাত্র জবিহুল্লাহ মুজাহিদ বলেন, এখন দেশ গঠনেই অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। বিদেশি হানাদারদের বিরুদ্ধে আমাদের যুদ্ধ শেষ হয়েছে। এখন দেশকে গড়ে তোলায় আমাদের সবচেয়ে বড় জিহাদ।

দেশের সব নৃতাত্ত্বিক গোষ্ঠীগুলোর মধ্যে আপস-মীমাংসার আহ্বান জানিয়েছেন জ্যেষ্ঠ হাজারা নেতা আয়াতুল্লাহ ওয়াজেদা বেহসুদি। তিনি বলেন, আসুন, আমরা পরস্পরকে ক্ষমা করে দিই। যদি বর্তমান সরকার স্থায়ী হতে চায়, তবে তাদের সাধারণ মানুষের সমর্থন দরকার পড়বে।

আফগানিস্তানের তিন কোটি ৮০ লাখ জনসংখ্যার ১০ থেকে ২০ শতাংশ হাজারা। সুন্নি সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশটিতে দীর্ঘদিন ধরে তারা নির্যাতিত হয়ে আসছেন। ১৯৯৮ সালে মাজার-ই-শরিফ শহরসহ দেশটির বিভিন্ন স্থানে হাজারা সম্প্রদায়ের লোকজনের ওপর ব্যাপক হত্যাকাণ্ড চালানো হয়েছে।

মানবাধিকার গোষ্ঠী হিউম্যান রাইটস ওয়াচ জানিয়েছে, তখন ২ হাজার বেসামরিক হাজারাকে হত্যা করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে জঙ্গি গোষ্ঠী আইএসকে আত্মঘাতী হামলা চালাতে পারে বলে বলে সন্দেহ করা হচ্ছে। সূত্রঃ সময় নিউজ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here