অনলাইন ডেস্কঃ আগে থেকেই আশঙ্কা ছিলো অসম প্রেম, লাশের সঙ্গে ডোমের অন্তরঙ্গ দৃশ্যসহ অন্যান্য আপত্তিকর বিষয় যে ছবির উপজীব্য সেই ছবি সেন্সর বোর্ডে আটকে যেতে পারে, শেষ পর্যন্ত তাই হয়েছে। কিছু সংশোধনীর পরও বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ড সিনেমাটি ‘প্রদর্শন অযোগ্য’ বলে জানিয়েছে। তাই এতে প্রেক্ষাগৃহে নয়, অনলাইনেই সিনেমাটিকে মুক্তি দিতে চলেছেন এর নির্মাতা রুবেল আনুশ।

আলোচিত এই ছবিতে ‘ম্যাডাম ফুলি’ খ্যাত সিমলার বিপরীতে অভিনয় করেছেন কিশোর অভিনেতা মামুন। সিনেমাটির নাম শুরুতে ‘নিষিদ্ধ প্রেমের গল্প’ রাখা হলেও নাম পাল্টে ‘প্রেমকাহন’ রেখে সর্বশেষ সেন্সরে জমা দেওয়া হয়। কিন্তু এবার পুরনো নামেই সিনেমাটি মুক্তির চিন্তা করেছেন নির্মাতা। নির্মাতা রুবেল আনুশ গণমাধ্যমকে বলেন, ‘আমরা বিকল্প পথে সিনেমাটি মুক্তির সিদ্ধান্ত নিয়েছি। ইউটিউবে সিনেমাটি মুক্তি দেব। ইউটিউবে দেখতে আলাদা করে কোনো টাকা লাগবে না।’

এর আগে, সেন্সর বোর্ড জানিয়েছিল, সিনেমাটির গল্পে লাশের সঙ্গে অন্তরঙ্গ দৃশ্য, নায়ক-নায়িকার মধ্যে অসম প্রেম ও মাত্রাতিরিক্ত গালাগালি রয়েছে। এগুলো সাধারণ দর্শকের দেখার উপযুক্ত নয়। এ কারণেই নিষিদ্ধ করা হয়। তবে এসব অভিযোগ মানতে নারাজ নির্মাতা। তার মতে, সিনেমায় কোনো অ্যাডাল্ট দৃশ্য নেই। গালি ছিল, সেটাও মিউট করে দিয়েছেন। এরপরও কেন নিষিদ্ধ করা হয়েছে, তার বোধগম্য নয়।

এদিকে, সেন্সর বোর্ডের সিদ্ধান্তের বিপক্ষে আপিল করার সুযোগ থাকলেও সে পথে হাঁটছেন না নির্মাতা। কারণ তিনি মনে করেন, এতে কোনো লাভ হবে না। তাই আগামী ২৫ নভেম্বর ‘সিনেমা কটেজ’ নামের একটি ইউটিউব চ্যানেলে সিনেমাটি মুক্তি দেয়া হবে। উল্লেখ্য, ছবিটি নানা টানাপোড়েনের কারণে সম্পন্ন হতে সময় লেগেছে দীর্ঘ ৭ বছর। সূত্রঃ বিডি-প্রতিদিন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here