অনলাইন ডেস্কঃ আপিল শুনানির আগে চুয়াডাঙ্গার একটি হত্যা মামলায় যশোর কেন্দ্রীয় কারাগারে দুই আসামির মৃত্যুদণ্ড কার্যকর নিয়ে যে কথা হচ্ছে সেটি সঠিক নয় বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।  বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে নিজ দফতরে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা জানান।

চুয়াডাঙ্গার একটি হত্যা মামলায় ঝড়ু ও মকিম নামের দুই আসামির নিয়মিত আপিল নিষ্পত্তির আগেই তাদের দণ্ড কার্যকর হয়েছে বলে বুধবার বিভিন্ন গণমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হয়।
এ বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে আইনমন্ত্রী বলেন, আপিল শুনানির আগে দুই আসামির মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের কথাটি সঠিক না।  তাদের আপিল শুনানি হয়েছে।  জেল আপিল ছিল, জেল আপিল শুনানি হয়েছে।  জেল আপিল শুনানির পর তাদের প্রাণভিক্ষা চাওয়ার যে অধিকার সেটাও দেওয়া হয়েছিল।  রাষ্ট্রপতি নাকচ করার পর তাদের ফাঁসি দেওয়া হয়েছে।

‘বিচারিক আদালতে এবং হাইকোর্টে তাদের মৃত্যুদণ্ডাদেশ নিশ্চিত করা হয়েছিল। জেল আপিলের শুনানি শেষে বিচারিক আদালত এবং হাইকোর্টের রায় বহাল রাখা হয়। তারপরে মৃত্যুদণ্ডাদেশপ্রাপ্ত আসামিরা রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণ ভিক্ষা চান। সেই আবেদন নাকচ করার পরই ফাঁসি কার্যকর করা হয়’—যোগ করেন আইনমন্ত্রী। সূত্রঃ যুগান্তর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here