অনলাইন ডেস্কঃ গোয়েন্দাদের সব তথ্য ভুল প্রমাণ করে আগস্টের দ্বিতীয় সপ্তাহে কাবুল দখল করে নেয় তালেবান। এর পর দেশটির প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনি পালালে সাবেক সরকারের পতন নিশ্চিত হয়। কিন্তু এই আশরাফ গনিই মৃত্যুর আগ পর্যন্ত লড়বেন বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন।

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্থনি ব্লিঙ্কেন রোববার বলেন, আফগানিস্তানের সাবেক প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনি বলেছিলেন, তিনি মৃত্যুর আগ পর্যন্ত লড়ে যাবেন। কিন্তু তালেবান কাবুলে আসার পর তিনি ঠিকই পালিয়ে গেছেন। খবর ডনের।

‘সিবিএস ফেস দ্য নেশন’ টকশোতে যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক বিশেষ দূত জালমাই খালিলজাদ বলেন, কাবুলে সরকারের পতন ঠেকাতে বাইডেন প্রশাসন আরও কিছু করতে পারত।

টক শোতে অ্যান্থনি ব্লিঙ্কেন বলেন, আমি ১৪ আগস্ট শনিবার রাতে আশরাফ গনির সঙ্গে কথা বলেছিলাম। তাকে নতুন একটি সরকারের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করার একটি পরিকল্পনা মেনে নিতে চাপ দিলাম। ওই সরকার তালেবানের নেতৃত্বে হবে ঠিকই, কিন্তু সরকারে আফগানিস্তানের সব পক্ষের প্রতিনিধি থাকবে।

‘তখন আশরাফ গনি আমাকে বললেন, তিনিও এমনটি করতে প্রস্তুত আছেন। তবে তালেবান যদি এ প্রক্রিয়া মেনে না নেয় তিনি (আশরাফ গনি) মৃত্যুর আগ পর্যন্ত লড়ে যাবেন। কিন্তু পর দিনই তিনি আফগানিস্তান থেকে পালালেন’, যোগ করেন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

আশরাফ গানি পালানোর পরই তালেবানের যোদ্ধারা কাবুলের নিয়ন্ত্রণ নেন। এর পর ৩০ আগস্ট যুক্তরাষ্ট্র আফগানিস্তান থেকে সব সেনা প্রত্যাহার করে নেয়।  এর মধ্যে আফগানিস্তানের সব প্রদেশের নিয়ন্ত্রণ নেয় তালেবান, গঠন করে অন্তর্বর্তী সরকার। যদিও এ সরকারে নারী ও সবপক্ষের অংশগ্রহণ নেই বলে অভিযোগ রয়েছে। সূত্রঃ যুগান্তর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here