অনলাইন ডেস্কঃ সব ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইটে একটি অভিযোগ বক্স থাকবে। যেখানে প্রতিষ্ঠানগুলোর বিরুদ্ধে যত অভিযোগ রয়েছে এবং কী পরিমাণ অভিযোগ নিষ্পত্তি করা হয়েছে, এ সংশ্লিষ্ট সকল তথ্য জানা যাবে এক ক্লিকেই। সেখানে যে কেউ অভিযোগ জানাতে পারবেন।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে ই-ক্যাবের (ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ) উদ্যোগে ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইটে এই সিস্টেমটি নিয়ে কাজ করছে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের প্রকল্প এটুআই (অ্যাকসেস টু ইনফরমেশন)।

মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) ‘জেনে শুনে বুঝে, শপিং হবে অনলাইনে’ শীর্ষক এক সভায় এটুআই-এর হেড অব ই-কমার্স রেজওয়ানুল হক জামিল এ তথ্য জানান।

সভায় তিনি বলেছেন, আগামী জানুয়ারিতে সিসিএমপি (সেন্ট্রাল কমপ্লেইন ম্যানেজমেন্ট প্রসেস) নামে এই সেবা চালু করা যাবে বলে আমরা আশা করছি। সেবাটির কাজ অনেকটাই এগিয়ে আছে। সিসিএমপির বিষয়টি ই-কমার্স বিষয়ক নীতিমালায় অন্তর্ভুক্ত করতে আমরা কাজ করছি।

নতুন নতুন অভিজ্ঞতার মধ্য দিয়ে ই-কমার্স সেক্টর গড়ে উঠেছে বলে জানান ই-ক্যাবের সভাপতি শমী কায়সার।

তিনি বলেছেন, লকডাউন এবং করোনার প্রাদুর্ভাবেও ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানগুলো সেবা দিয়েছে। যদিও কিছু সমস্যা দেখা দিয়েছে এবং তা কাটিয়ে উঠার জন্য এসওপি (নীতিমালা) হয়েছে। তবে এসওপিই শেষ নয়। এটি একটি গাইডলাইন। দেশে প্রচলিত আইনগুলোর সঙ্গে কিভাবে একযোগে করে কাজ করা যায়, তাও দেখতে হবে বলে জানান তিনি। শুধু ক্রেতাদের জন্য নয়, বিক্রেতাদেরও জেনে শুনে বুঝে কাজ করা জরুরি বলে মন্তব্য করেন শমী কায়সার।

 
এ বিষয়ে ই-ক্যাব মহাসচিব আবদুল ওয়াহেদ তমাল বলেছেন, ই-কমার্স সেক্টরে হয়ে যাওয়া কিছু ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে অনেকেই ভাবছেন অনলাইনে কেনাকাটা না করার কথা। যা ঠিক নয়। ই-কমার্সের কোনো বিকল্প নেই। ভবিষ্যতে শুধু ই-কমার্সই থাকবে। তবে ক্রেতাদের জেনে শুনে বুঝে কেনাকাটা করতে হবে।

তিনি মন্তব্য করেন যে, ই-কমার্সে যেসব নীতিমালা হয়েছে সেটা যদি না হতো, তাহলে ই-কমার্স ইন্ডাস্ট্রিতে আরও কয়েক হাজার কোটি টাকার ক্ষতি হতো।

ই-কমার্স নিয়ে সাম্প্রতিক ঘটনাবলীর পরিপ্রেক্ষিতে ‘জেনে, শুনে, বুঝে, শপিং হবে অনলাইনে’ শীর্ষক এই সভা আয়োজন করে ই-ক্যাব। সূত্রঃ সময় নিউজ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here