অনলাইন ডেস্কঃ মোংলা বন্দরের পশুর চ্যানেলে সুন্দরবনের অপর পাড়ে কানাইনগর এলাকায় ৮৫০ মেট্রিক টন ডেপ সার নিয়ে শুক্রবার দুপুরে ডুবে যায় লাইটার কার্গো জাহাজ। এ ঘটনায় এমভি দেশ বন্ধুর মালিক পক্ষকে ১৫ দিনের মধ্যে ডুবন্ত জাহাজ উত্তোলনের নির্দেশ দিয়েছে বন্দর কর্তৃপক্ষ। একই সাথে ডুবে যাওয়া জাহাজ থেজে ৩ দিনের মধ্যে ডেপ সার অপসারণেরও নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ এ সংক্রান্ত নির্দেশের অনুলিপি সুন্দরবন বিভাগ, পরিবেশ অধিদপ্তর, কোস্টগার্ড, নৌবাহিনী, পরিবহন মালিক সমিতি, বার্থ এন্ড শিপ অপারেটর এসোসিয়েশন ও মোংলা থানাকে দেয়া হয়েছে।

মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের হারবার মাস্টার ও সচিব (ভারপ্রাপ্ত) কমান্ডার শেখ ফখর উদ্দিন জানান, ১৫ দিনের মধ্যে পশুর চ্যানেল থেকে ডুবে যাওয়া লাইটার কার্গো জাহাজ এমভি দেশ বন্ধুকে উদ্ধার করতে এ সংক্রান্ত নির্দেশনা দিয়ে শনিবার সকালে জাহাজের ঢাকাস্থ মালিক কাজী নজরুল ইসলামকে চিঠি দেয়া হয়েছে। বন্দরের পশুর চ্যানেলে জাহাজ চলাচল স্বাভাবিক রাখতে ‘দ্য রিমুভেবল অব ওয়ার্ক এন্ড অবজ্যাকশন ইন ইনল্যান্ড নেভিগেভল ওয়াটারওয়েস রুলস’ ১৯৭৩ আইনের ১১ ধারা মোতাবেক আগামী ১৫ দিনের মধ্যে দুর্ঘটনাস্থল থেকে জাহাজটি উদ্ধার করতে হবে। একই সাথে আগামী তিনদিনের মধ্যে ডুবে যাওয়া ওই জাহাজ থেকে ডেপ সারও অপসারণেরও নির্দেশ দেয়া হয়েছে। আগামী ১৫ দিনের মধ্যে মালিকপক্ষ ডুবে যাওয়া কার্গোটি উদ্ধারে ব্যর্থ হলে বন্দরের নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় ডুবে যাওয়া কার্গো জাহাজটি উত্তোলন করবে। তবে এর জন্য বন্দর কর্তৃপক্ষকে মালিকপক্ষ সম্পূর্ণ আর্থিক খরচ দিতে হবে। না দিলে লাইটার কার্গো জাহাজটি নিলামে তুলবে মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ।

 

এ বিষয়ে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ ও বিজ্ঞান বিভাগের ডিসিপ্লিন অধ্যাপক আবদুল্লাহ হারুন চৌধুরী বলেন, পশুর চ্যানেলে ডুবে যাওয়া লাইটার কার্গো জাহাজ থেকে ডেপ সার এরই মধ্যে ছড়িয়ে পড়েছে। ইউরিয়া ও টিএসপি মিশ্রনে তৈরি ডেপ সার অতিমাত্রায় দূষণ তৈরি করে। যার ফলে ব্যাকটেরিয়া ও অনুবিক্ষণিক জীবাণু বেড়ে সুন্দরবনের জলজ প্রাণীর রোগাক্রান্ত  করবে। এতে করে সুন্দরবনের জীববৈচিত্র্যের উপর বিরূপ প্রভাব ফেলবে। সূত্রঃ বিডি-প্রতিদিন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here