অনলাইন ডেস্কঃ আত্নীয়ের জন্মনিবন্ধন কার্ড সংশোধন করতে আসা স্থানীয় এক ব্যবসায়ীকে আপু না ডেকে মা বলে সম্বোধন করতে বলছেন কুমিল্লার বুড়িচংয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোছাম্মৎ সাবিনা ইয়াছমিন। স্থানীয় ওই ব্যবসায়ী এ ঘটনার কথা ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিলে বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়।

গত সোমবার (৪ অক্টোবর) দুপুরে বুড়িচং ইউএনও কার্যালয়ে এ ঘটনা ঘটেছে। ভুক্তভোগী স্থানীয় ব্যবসায়ী জামাল উদ্দিন তার ফেসবুক পোস্টে লিখেছেন, সরকারি কর্মকর্তাদেরকে সাধারণ জনগণ ‘স্যার’ বলতে হবে এটা কি বাধ্যতামূলক? এ বিষয়ে সরকারের কোনো আইন আছে কি? ফ্যাক্ট: বুড়িচং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে ‘আপা’ বলার কারণে খুব রাগান্বিত হয়েছেন। এটা নাকি অফিস অ্যাড্রেস না। আপা না বলে মা ডাকতাম। আমি লজ্জিত। দেশটা কি মগের মুল্লুক?

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোছাম্মৎ সাবিনা ইয়াছমিন সাংবাদিকদের বলেন, একজন বয়স্ক লোক আমাকে আপু ডেকেছে। আমি তাকে বলেছি, আপনি আমার বাবার বয়সী, মা ডাকেন। বয়স্ক লোকে মা ডাকবে এটাই স্বাভাবিক, আপু ডাকলে বুঝতে হবে তার চরিত্রে সমস্যা আছে। যার চরিত্রগত সমস্যা আছে, সে মেয়ে দেখলেই আপু ডাকে, এটা বুঝতে হবে। যার এক পা কবরে চলে গেছে, সে আমাকে আপু ডাকলে অবশ্যই আমার আপত্তি আছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে জামাল উদ্দিন বলেন, আমার এক আত্মীয়ের জন্মনিবন্ধন সংশোধনের জন্য আমি ইউএনও কার্যালয়ে গেলে স্যার সম্বোধন করেই ওনার সঙ্গে আমার কথা শুরু হয়। কথার এক পর্যায়ে অপ্রত্যাশিতভাবে আমার মুখ থেকে আপা শব্দটি বের হলে উনি রেগে বলেন, এটাতো অফিসিয়াল ভাষা না। আপা না ডেকে মা ডাকেন। বিষয়টি নিয়ে আমি বিব্রত ও লজ্জিত। এজন্যই ফেসবুকে পোস্ট দিয়েছি। সূত্রঃ যমুনা নিউজ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here