অনলাইন ডেস্কঃ টিম ম্যানেজার ছাড়াই সংযুক্ত আরব আমিরাতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মতো বড় আসরে অংশ নেবে বাংলাদেশ। অর্থাৎ বিশ্বকাপে ‘অভিভাবক’ পাচ্ছেন না মাহমুদউল্লাহ ও তার দল।

দলের সঙ্গে নাকি টিম লিডারের দায়িত্ব নিয়ে যেতে ইচ্ছুক নন কেউ। বিসিবির ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খান নিজেও টিম লিডার হয়ে বিশ্বকাপে যেতে ইচ্ছুক নন।

এর কারণ বলতে তিনি জানিয়েছেন, সামনে বিসিবির নির্বাচন। এই সময়ে দলের সঙ্গে এক-দেড় মাস বাইরে থাকার ইচ্ছে নেই কারো।

আকরাম খান বলেন, ‘আমরা খেলা দেখতে যাব। তবে কোনো পদ-পদবি নিয়ে দলের সফরসঙ্গী হবো না এবার।’

এর আগে এ দায়িত্ব নিতে দেখা গেছে খালেদ মাহমুদ সুজনকে। শ্রীলংকার সাথে হোমে ও সফরে বোর্ডের প্রতিনিধি ছিলেন তিনি। আর সবার চাইতে ক্রিকেটারদের বেশি কাছের মানুষ তিনি। ক্রিকেটাররা তাকে প্রিয় ‘চাচা’হিসেবে ডাকেন।

কিন্তু জানা গেল, সুজনও যাচ্ছেন না টিম লিডার বা ম্যানেজার হয়ে।

কেন তিনি যাচ্ছেন না – এ প্রশ্নে ভেতরের খবর হলো, হেড কোচ রাসেল ডমিঙ্গো এবং পেস বোলিং কোচ ওটিস গিবসনের সঙ্গে বনিবনা হচ্ছে না সুজনের।

এর অন্যতম কারণ, কোচ না হয়েও টুর্নামেন্ট চলাকালীন খেলোয়াড়দের নানা পরামর্শ দেন সুজন। যা ডমিঙ্গো ও গিবসনের পছন্দ নয়।

ক্রিকেটারদের সঙ্গে সুসম্পর্ক থাকায় সুজন তাদের প্রয়োজনীয় ও তাৎক্ষণিক পরামর্শ দেন। দু’ একসময় মাঠে বার্তাও পাঠান।

এসব বিষয় দুই কোচের পছন্দ নয়, তা জানেন সুজন। যে কারণে বিশ্বকাপে ক্রিকেটারদের সঙ্গে যেতে অনিচ্ছুক তিনি। তার কথায়,  যেচে উপকার করার দরকার কী!

তাই সুজনকে এবার বিশ্বকাপে কোনো দায়িত্বে দেখা যাবে না।

জানা গেছে, বিশ্বকাপে লজিস্টিক ম্যানেজার হয়ে যাবেন ক্রিকেট অপারেশন্স ম্যানেজার সাব্বির খান। এর বাইরে নির্বাচকদের মধ্য থেকে একজন যাবেন।

শ্রীলংকা আর জিম্বাবুয়ে সফরে বিসিবির সিনিয়র পরিচালক জালাল ইউনুস ও আহমেদ সাজ্জাদুল আলম ববি টিম লিডার হয়ে যথাক্রমে নিউজিল্যান্ড আর জিম্বাবুয়ে গেছেন।

কিন্তু এবার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ওমান ও সংযুক্ত আরব আমিরাতে কোনো বোর্ড পরিচালক ওই পদে থাকছেন না। সূত্রঃ যুগান্তর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here