অনলাইন ডেস্কঃ চলতি বছর ডিসেম্বরেই হবে মেট্রোরেলের ট্রায়াল রান। চলবে উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত। ভায়াডাক্টের পাশাপাশি বসে গেছে এই অংশের ১৮ কিলোমিটারের ডাবল লাইন রেলপথ, কাজ চলছে বৈদ্যুতিক সঞ্চালন লাইনের। এই সময়ের মধ্যে প্রস্তুত হবে নয়টি স্টেশনও। আর মেট্রোরেলের ভাড়া নির্ধারণে গঠিত কমিটি এখনও পর্যন্ত একটি বৈঠক করেছে। তারা বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মেট্রোরেলের ভাড়া পর্যালোচনা করে ঢাকা মেট্রোরেলের ভাড়া নির্ধারণ করবে। ইতোমধ্যে ওই কমিটি বিভিন্ন দেশের ভাড়া পর্যালোচনার কাজ শুরু করেছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেডের (ডিএমটিসিএল) এমডি এম এ এন ছিদ্দিক।

২৯ আগস্ট রাজধানীর বুকে প্রথম চললো মেট্রোরেল। পরীক্ষামূলক এই যাত্রায় আস্থা বেড়েছে দ্রুতযানটির বাস্তবায়নকারী সংস্থা ডিএমটিসিএলের। উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত প্রথম পর্যায়ে মেট্রোর আনুষ্ঠানিক যাত্রার লক্ষ্যপূরণে এই অংশে পরীক্ষামূলক যাত্রা দ্রুতই শুরু করতে চায় সংস্থাটি।

উত্তরার তিনটি, পল্লবী ও মিরপুর-১১ স্টেশনের প্ল্যাটফর্ম নির্মাণ শেষ। প্রথম চারটি স্টেশনের ছাদে স্টিলের কাঠামো স্থাপন করা হয়েছে। উত্তরার তিনটি স্টেশনে ছাদের কাজও শেষ হবার পথে বলে জানিয়েছেন মেট্রোরেল লাইন-৬ ডেপুটি প্রজেক্ট ডিরেক্টর মাহফুজুর রহমান।

এখন পর্যন্ত আনা চার সেট ট্রেন পরীক্ষামূলক যাত্রায় অংশ নিচ্ছে। দেশে আসা বাকি ট্রেনগুলোও পর্যায়ক্রমে ট্রায়ালে আসবে বলে জানালেন ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেড, ডিএমটিসিএলের এমডি এম এ এন ছিদ্দিক। তিনি বলেন, উত্তরা থেকে আগারগাঁও যাত্রীবিহীন ট্রায়াল রান হবে সবার শেষে। কিন্তু ভাড়া এখনও নির্ধারণ করা হয়নি। তবে মেট্রোরেলের ভাড়া নির্ধারণে গঠিত কমিটি এখনও পর্যন্ত একটি বৈঠক করেছে। তারা ইতোমধ্যে মেট্রোরেলের ভাড়া নিয়ে পর্যালোচনা শুরু করেছে। সূত্রঃ যমুনা নিউজ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here