অনলাইন ডেস্কঃ জাতীয় দলের বিশ্বকাপ স্কোয়াড ঘোষণার দিন, আফগানিস্তানের বিপক্ষে সিরিজের জন্য ১৮ সদস্যের অনূর্ধ্ব-১৯ দলও ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। ৫ ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজটি শুরু হচ্ছে শুক্রবার (১০ সেপ্টেম্বর)।

এই দলের অধিনায়ক করা হয়েছে মেহরাব হাসানকে। আর সহ-অধিনায়ক আইচ মোল্লা। ১৮ সদস্যের স্কোয়াডে আরও আছেন- রবিন, ইফতি, নাবিল, খালিদ, মামুন, তাহজিবুল, আরিফুল, মাকসুদুর, মুশফিক, রিপন, আশিকুর, তারেক, নয়ন, সিয়াম, ইপন ও কিবরিয়া। এছাড়া, অনিক ও মাহিনকে রাখা হয়েছে স্ট্যান্ডবাই তালিকায়।

১৯ সেপ্টেম্বর ওয়ানডে সিরিজ শেষে, ২২ সেপ্টেম্বর থেকে একটি চারদিনের ম্যাচও খেলবে যুবারা। সবগুলো ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে।

এর আগে, সুস্থ পৃথিবীতে অনূর্ধ্ব ১৯ যুবাদের সবশেষ বিশ্বকাপ মাতিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে শিরোপাটা ঢাকায় উড়িয়ে এনেছিল আকবর আলীরা। তারপর থেকেই এই আসর নিয়ে আগ্রহ বেড়েছে দেশের ক্রিকেটপ্রমীদের। ক্যারিবিয়ানদের মাটিতে পরের আসরে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নদের কাছে প্রত্যাশা থাকবে আরও বেশি। মূলত এই টুর্নামেন্টের প্রস্তুতি হিসেবেই এই দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলা হচ্ছে।

তালেবান ইস্যুতে নানা জটিলতা কাটিয়ে, গেল ৪ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশে পা রাখে আফগানিস্তান অনূর্ধ্ব-১৯ দল। তালেবান ক্ষমতায় আসার পর প্রথমবারের মতো আফগানদের বিদেশ সফর এটি।  যদিও গেল ৩১ আগস্ট বাংলাদেশে আসার কথা ছিল তাদের। ২০ দিনের সফর শেষে ২৭ সেপ্টেম্বর দেশে ফিরে যাবেন আফগানরা।

তবে পেক্ষাপট পাল্টে যায় তালেবান দেশটির নিয়ন্ত্রণ নিলে। পরবর্তীকালে তাদের অনুমতি মেলায় অবশেষে সফরে আসেন আফগান যুবারা। গাড়িযোগে প্রথমে পাকিস্তান, সেখান থেকে দুবাইয়ে ট্রানজিট শেষে ঢাকায় হয়ে সিলেট যায় গোটা দল। ছিলেন তিন দিনের রুম কোয়ারেন্টাইনে। সেখানে মাঠের অনুশীলন শুরু হয় ৭ সেপ্টেম্বর থেকে।

তালেবানের দখলে আফগানিস্তান চলে যাওয়ার পর থেকেই সে দেশের ক্রীড়া ভবিষ্যৎ নিয়ে সংশয় তৈরি হয়। তবে তালেবান আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বিরোধিতা না করায় শঙ্কার মেঘ কেটে যায়। যদিও বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে মেয়েদের খেলাগুলো। এর প্রতিক্রিয়ার আফগানিস্তান পুরুষ দলের বিপক্ষে আগামী বছরের অনুষ্ঠিতব্য একমাত্র টেস্টটি না খেলার হুমকি দিয়েছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া।

প্রতিক্রিয়ার ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া বলেছে, ‘আমাদের কাছে ক্রিকেটকে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে দেওয়ার গুরুত্ব অপরিসীম, সেটা হোক ছেলের মধ্যে কিংবা মেয়েদের মধ্যে। ক্রিকেট নিয়ে আমাদের দৃষ্টিভঙ্গি হলো এটা সবার খেলা। আমরা যে কোনো পর্যায়ের মেয়েদের ক্রিকেটের পাশে আছি।’ সূত্রঃ সময় নিউজ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here