অনলাইন ডেস্কঃ বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে আর্মেনিয়ার বিপক্ষে দাপুটে ফুটবল খেলে বড় জয় পেয়েছে জার্মানি।

দুটি বা এক হালিও নয়; আর্মেনিয়ার জালে গুণে গুণে হাফডজন গোল জমা করেছেন হান্স ফ্লিকের শিষ্যরা। যার একটিও শোধ করতে পারেনি আর্মেনিয়া।

রোববার রাতে ‘জে’ গ্রুপের ম্যাচে ৬-০ গোলে জিতেছে চারবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা।

এদিন জোড়া গোল করেছেন সের্গেই জিনাব্রি, একটি করে করেছেন মার্কো রয়েস, টিমো ভেরনার, ইয়োনাস হফমান ও করিম আদেইয়েমি।

গোল সংখ্যাটা ৯ হতে পারত যদিও জার্মানদের দুটি প্রচেষ্টা ক্রসবারে লেগে না ফিরত। একটি গোল অফসাইডে বাতিল হয়েছে।

এমন একপেশে খেলা হয়তো জার্মানি সমর্থকরা চাননি।

একাদশে ৬টি পরিবর্তন এনে খেলতে নামে জার্মানি। ষষ্ঠ মিনিটে দলকে এগিয়ে নেন জিনাব্রি। লেয়ন গোরেটস্কার পাসে দূরূহ কোণ থেকে জোরালো শটে বলে জালে পাঠান বায়ার্ন মিউনিখের এই ফরোয়ার্ড।

১৫তম মিনিটে নিজের দ্বিতীয় গোলটি করেন জিনাব্রি। বাঁ দিক থেকে রয়েসের বাড়ানো বলে ডি-বক্সে পা ছোঁয়াতে পারেননি ভেরনার। তবে ঠিকই জালে পাঠিয়ে দেন জিনাব্রি।

৩৫তম মিনিটে জিনাব্রির ক্রসে ডি-বক্সে ভেরনার ব্যাকহিল ফ্লিকে বল দেন রয়েসকে। দুর্দান্ত গোল করেন বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের ফরোয়ার্ড রয়েস।

বিরতির আগেই ৪-০ স্কোরলাইন করেন ভেরনা। কিমিখের ক্রস থেকে গোরেটস্কার হেড পাসে বল পেয়ে জালে পাঠান চেলসির এই ফরোয়ার্ড।

বিরতির পর মাঠে নেমে ফের গোলোৎসবে মাতে জার্মানি। ৫২তম মিনিটে একটি কর্নার থেকে ডি-বক্সের বাইরে বল পেয়ে যান হফমান। জোরালো ভলিতে গোল করেন তিনি। জাতীয় দলের হয়ে এটাই তার প্রথম গোল।

৮২তম মিনিটে গোলরক্ষককে কাটিয়ে বল জালে পাঠান ভেরনার। তবে অফসাইডের বাঁশিতে সেই গোল পণ্ড হয়। ম্যাচের তখন স্কোর ৫-০।

এতেই সন্তুষ্টি নিয়ে বাড়ি ফেরার কথা ছিল জার্মানি সমর্থকদের। কিন্তু অতিরিক্ত সময়ে দ্বিতীয়ার্ধে জিনাব্রির বদলি নামা আদেইয়েমি স্কোরশিটে নাম লেখান। জাতীয় দলের হয়ে অভিষেক ম্যাচ ছিল তার। আর প্রতিপক্ষের জালে বল পাঠিয়ে অভিষেকটা দারুণ রাঙালেন এই ফরোয়ার্ড। সূত্রঃ যুগান্তর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here