অনলাইন ডেস্কঃ সারাদেশে কোভিড রোগীর সংখ্যা কমলেও হাসপাতালগুলো এখন ডেঙ্গি রোগীতে পূর্ণ হয়ে যাচ্ছে। ডেঙ্গি শনাক্ত হলেই আমরা আতঙ্কিত হয়ে পড়ি। অথচ অধিকাংশ ডেঙ্গি রোগীর চিকিৎসা বাসাতেই সম্ভব।

তবে নিচের যেকোন একটি বিপদ চিহ্ন থাকলে সময় নষ্ট না করে দ্রুত হাসপাতালে ভর্তি হতে হবে।

১. প্রচণ্ড পেট ব্যথা ও অত্যাধিক পানি পিপাসা থাকলে।

২. ঘন ঘন বমি বা বমি বন্ধ না হলে।

৩. রক্তবমি বা কালো পায়খানা হলে।

৪. দাঁতের মাড়ি বা নাক দিয়ে রক্তপাত হলে।

৫. ৬ ঘন্টার বেশি সময় ধরে প্রস্রাব না হলে।

৬. প্রচণ্ড শ্বাসকষ্ট হলে।

৭. ডায়রিয়া হলে এবং অত্যধিক শারীরিক দূর্বলতা অনুভব করলে।

৮. গর্ভবতী মা, নবজাতক শিশু, বয়স্ক রোগী, ডায়বেটিস ও কিডনি রোগ থাকলে।

৯. শরীর অস্বাভাবিক ঠান্ডা হয়ে গেলে।

এছাড়া আপনার চিকিৎসক যদি আপনাকে হাসপাতালে ভর্তি থেকে চিকিৎসা নিতে বলে সেক্ষেত্রে দ্রুত হাসপাতালে ভর্তি হবেন।

যদি উপরের কোন বিপদ চিহ্ন না থাকে এবং রোগী মুখে পর্যাপ্ত তরল খাবার খেতে পারে সেক্ষেত্রে রোগীকে বাসায় রেখে চিকিৎসা দেয়া সম্ভব।

কী চিকিৎসা দিবেন?

রোগী পূর্ণ বিশ্রামে থাকবে,

স্বাভাবিক খাবারের পাশাপাশি প্রচুর পরিমাণে তরল খাবার যেমন, খাবার স্যালাইন, ডাবের পানি, ফলের রস, ভাতের মাড়, স্যুপ খেতে দিতে হবে।

প্যারাসিটামল ব্যতীত অন্য কোনো ব্যথার ওষুধ দেয়া যাবে না।

জ্বর কমাতে কুসুম গরম পানি দিয়ে সারা শরীর মুছে দিবেন। সূত্রঃ যুগান্তর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here