অনলাইন ডেস্কঃ টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট আবির্ভাবের পর থেকেই জনপ্রিয়তায় তুঙ্গে। তারই একবাজারি সংস্করণ হলো ফ্র্যাঞ্চাইজি টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট। এ লিগের জনপ্রিয়তা আকাশচুম্বি।

আগে যাদের ক্রিকেট নিয়ে অতটা আগ্রহ ছিল না, তারাই এখন ক্রিকেটের এ সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটে বেশি ঝুঁকছেন। ক্রিকেটকে বিনোদনের পাশাপাশি অনেকে বাণিজ্যিকভাবেও নিচ্ছেন।

যাদের হাজার হাজার কোটি টাকা আছে, তারা চাইলেই বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় ফ্র্যাঞ্চাইজি টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) দল কিনতে পারেন।

২০২২ সালে ৮ দলের পরিবর্তে ১০ দল নিয়ে আইপিএল অনুষ্ঠিত হবে। সেই হিসাবে নতুন দুটি ফ্র্যাঞ্চাইজি বিক্রি হবে। নতুন দলের বেসপ্রাইস প্রায় ২ হাজার কোটি টাকা ধার্য করা হয়েছে। আগে নতুন দলের বেসপ্রাইস ধার্য করা হয়েছিল ১৭০০ কোটি টাকা। সেই মূল্য বাড়িয়ে এখন ২ হাজার কোটি টাকা করা হয়েছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, যারা ফ্র্যাঞ্চাইজি মালিক হতে আগ্রহী তাদের এখন ৭৫ কোটি টাকা দিয়ে বিড ডকুমেন্টস কিনতে হবে।

যাদের বার্ষিক ৩ হাজার কোটি টাকা বা তারও বেশি আর্থিক লেনদেন হয় তারাই আইপিএলের দল কেনার জন্য বিডে অংশ নিতে পারবে।

ভারতীয় সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের (বিসিসিআই) এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, যে কেউ ৭৫ কোটি টাকা দিয়ে বিড ডকুমেন্টস কিনতে পারে। প্রথম ২টি নতুন দলের বেসপ্রাইস ১৭০০ কোটি টাকা রাখার ভাবনা ছিল, পরে সেটা ২০০০ কোটি টাকা করা হয়েছে৷

২০২২ সালে আহমেদাবাদ নামে আইপিএলে একটি দল থাকবে। এছাড়া পুনে ও লখনৌয়ের মধ্য থেকে আরেকটি ফ্র্যাঞ্চাইজি থাকতে পারে। এর আগে রাইজিং পুনে সুপারজায়ান্ট নামে পুনেরই একটি দল আইপিএলে অংশ নিয়েছিল।

সেই ফ্র্যাঞ্চাইজির মালিক ছিলেন সঞ্জীব গোয়েঙ্কা। তিনি এবারো বিডে অংশ নিতে পারেন। আর আহমেদাবাদের মালিকানা পেতে আগ্রহী শিল্পপতি গৌতম আদানি। যদিও এখনো চূড়ান্ত কিছু জানা যায়নি।

আগামী বছরের আইপিএল দল দুটি বাড়লে ম্যাচ সংখ্যাও বেড়ে ৬০ থেকে ৭৪ হতে পারে। সূত্রঃ যুগান্তর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here