অনলাইন ডেস্কঃ আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের কাছে পোষা প্রাণীদের একটি আশ্রম চালাতেন সাবেক ব্রিটিশ নৌ কর্মকর্তা পল পেন ফার্থিং।  যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশটি থেকে আশ্রমের দুইশ কুকুর-বিড়াল সরিয়ে নিতে পাঁচ লাখ ডলার (বাংলাদেশি মুদ্রায় ৪ কোটি ২৬ লাখ টাকা) দিয়ে একটি বিমান ভাড়া করেছিলেন তিনি।   কিন্তু স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কাবুল বিমানবন্দরের বাইরে বোমা হামলায় সব ওলট-পালট হয়ে যায়।  আপাতত কাবুলেই থাকতে হচ্ছে পশুপ্রেমী ৫২ বছর বয়সী এই সামারিক কর্মকর্তাকে।

এ ব্যাপারে টুইটারে পল জানান, বিস্ফোরণের আগেই বিমানবন্দরের ভেতরে কুকুর-বিড়াল নিয়ে কাবুল ছাড়ার অপেক্ষা করছিলেন পল। শেষ মুহূর্তে বাইডেন প্রশাসন কাবুল ছাড়ার ক্ষেত্রে নিয়মে পরিবর্তন আনে। ফলে ওই দিন তার কাবুল ছাড়ার পরিকল্পনা ভেস্তে যায়। বিমানবন্দর ছাড়ার সময় বিস্ফোরণের কবলে পড়েন পল।

পল কেন ব্রিটিশ সরকারের সহায়তায় বিমানবন্দর ছাড়লেন না প্রশ্ন উঠলে পল জানান, কাবুল বিমানবন্দর মার্কিনিদের নিয়ন্ত্রণে। তাই তাদের নিয়মই মানতে বাধ্য হয়েছেন পল।

তালেবান আফগানিস্তানের ক্ষমতা দখলের পর থেকেই অসহায় প্রাণীদের উদ্ধার করে পল কাবুলের কাছেই তার আশ্রমে রাখতেন। সেখানেই থাকতেন তার কিছু কর্মী ও পরিবারের সদস্যরা। এসব প্রাণীকে যুদ্ধবিধ্বস্ত কাবুলে ছেড়ে না আসার জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছিলেন পল। শেষমেষ নিজেই বিমান ভাড়া করে তাদের নিয়েই কাবুল ত্যাগ করার সিদ্ধান্ত নেন পল।

তবে কাবুল ছাড়াতে না পারার জন্য বাইডেনের খামখেয়ালিকে দায়ী করেছেন পল।  নিরাপত্তা ইস্যুতে পলের ভাড়া করা ওই বিমানের ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে।  এর বদলে আরেকটি বিমান দেওয়া হবে পলকে। তবে পল বিমানবন্দরে ঢোকার অনুমতি না পেলে বিমানটি কাবুলে অবতরণ করবে না বলে জানা গেছে। সূত্রঃ যুগান্তর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here