অনলাইন ডেস্কঃ ১১ দিন আগে যুক্তরাষ্ট্রের ডিজিটাল টোকেন প্ল্যাটফর্ম পলি নেটওয়ার্ক থেকে ৬০০ মিলিয়ন বা ৬০ কোটি ডলার মূল্যের বিটকয়েন চুরি করেছিল হ্যাকাররা। বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৫ হাজার কোটি টাকার ওই চুরি সারা বিশ্বেরই হইচই ফেলে দিলেও কয়েকদিনের ব্যবধানেই হ্যাকাররা তার বড় অংশ ফিরিয়ে দেয়। এবার একই রকম হ্যাকিংয়ের শিকার, জাপানের শীর্ষ ক্রিপ্টোকারেন্সি এক্সচেঞ্জ লিকুইড।

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদনে জানা গেছে, হ্যাকাররা জাপানি এ প্লাটফরম থেকে চুরি করেছে প্রায় ১০০ মিলিয়ন বা ১০ কোটি ডলারের ক্রিপ্টোকারেন্সি। বাংলাদেশি মুদ্রায় তা প্রায় সাড়ে ৮শ’ কোটি টাকার সমপরিমাণ।

লিকুইড কর্তৃপক্ষ টুইটার বার্তায় বলেছে, যে তাদের ‘ওয়ার্ম’ ওয়ালেটগুলো হ্যাকারদের দ্বারা আক্রান্ত হওয়ায় তারা কোল্ড ওয়ালেটে ডিজিটাল সম্পদ স্থানান্তর করেছে। মূলত ওয়ার্ম ওয়ালেট হলো অনলাইনভিত্তিক ক্রিপ্টোকারেন্সি সংরক্ষণ ব্যবস্থা যা ব্যবহারকারীরা সহজেই নিয়ন্ত্রণে নিতে পারেন অন্যদিকে কোল্ড ওয়ালেট হলো অফলাইনভিত্তিক ব্যবস্থা যা নিয়ন্ত্রণে নেওয়া তুলনামূলক কঠিন এবং অনেক বেশি সুরক্ষিত।

ব্লকচেইন পর্যবেক্ষক প্রতিষ্ঠান এলিপ্টিক বলছে, বিটকয়েন ও ইথেরিয়াম টোকেন মিলিয়ে মোট ৯ কোটি ৭০ লাখ ডলারের ক্রিপ্টোকারেন্সি হাতিয়ে নিয়েছে হ্যাকাররা।

বেহাত হওয়া এসব ডিজিটাল অর্থের লেনদেনে নজর রাখার পাশাপাশি অন্যান্য এক্সচেঞ্জ প্লাটফরমের সাথে যোগাযোগ করে সে অর্থ ফ্রিজ করে পুনরুদ্ধারের চেষ্টা করছে লিকুইড।

২০১৪ সালে যাত্রা শুরু করে জাপানি প্রতিষ্ঠান লিকুইডের বিশ্বের একশ’র বেশি দেশের লাখ লাখ ব্যবহারকারীকে ক্রিপ্টোকারেন্সি লেনদেনে সেবা দিয়ে আসছে।

কয়েনমার্কেটক্যাপ-এর তথ্যমতে, দৈনিক লেনদেনের হিসাবে বিশ্বের শীর্ষ ২০টি ক্রিপ্টোকারেন্সি সাইটে একটি হলো লিকুইড। এর আগে ২০১৪ সালের টোকিও ভিত্তিক ক্রিপাটোকারেন্সি এক্সচেঞ্জ ম্যাটগক্সে প্রায় ৫০ কোটি ডলার মূল্যের বিটকয়েন চুরি হয়। এরপর ২০১৮ সালে কয়েনচেক নামের এক্সচেঞ্জ ২০১৮ সালে ৫৩ কোটি ডলার হ্যাকিং এর শিকার হয়।

২০০৯ সালে জাপানী নাগরিক সাতোশি নাকামোতো বিটকয়েন নামের ডিজিটাল মুদ্রার উদ্ভাবন করেন। কয়েকবছরের ব্যবধানেই তা বিশ্বের বিভিন্ন দেশে জনপ্রিয়তা পায়। যদিও ঝুঁকিপিূর্ণ হওয়ায় বাংলাদেশসহ অনেক দেশেই ডিজিটাল কারেন্সির ব্যবহার নিষিদ্ধ। বর্তমানে বিশ্ববাজারে এক বিটকয়েন  বিক্রি হচ্ছে প্রায় ৪২ লাখ টাকায়। সূত্রঃ সময় নিউজ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here