অনলাইন ডেস্কঃ পদত্যাগ করলেন যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক রাজ্যের গভর্নর অ্যান্ড্রু কুমো। তার বিরুদ্ধে করা এক তদন্তে ১১ জন নারীকে যৌন হয়রানি করার অভিযোগের সত্যতা পাওয়ার পর তিনি পদত্যাগ করেন। তার পদত্যাগ আগামী ১৪ দিনের মধ্যে কার্যকর হবে। এরপর দায়িত্ব নেবেন লেফটেন্যান্ট গভর্নর ক্যাথে হসুল।

গভর্নর অ্যান্ড্রু কুমোর বিরুদ্ধে তদন্তে তার বিরুদ্ধে একাধিক নারীকে যৌন হয়রানির প্রমাণ পাওয়ার পর থেকেই তাকে পদ থেকে সরানোর প্রচেষ্টা আরও জোরদার হচ্ছিল। এর মধ্যেই মঙ্গলবার (১০ আগস্ট) পদত্যাগের ঘোষণা দিলেন কুমো। এর আগে, ডেমোক্রেট আইনপ্রণেতারা এবং মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন তাকে সরে দাঁড়াতে বলেন।

নিউইয়র্কের অ্যাটর্নি জেনারেলের কার্যালয়ের তদন্তে উঠে আসে, মি. কুমো অন্তত ১১ জন নারীকে যৌন হয়রানি করেছেন। তাদের মধ্যে রাজ্যের কর্মীরাও রয়েছেন। যদিও এসব অভিযোগ কুমো অস্বীকার করেছেন। এখন একাধিক কাউন্টিতে তার বিরুদ্ধে তদন্ত চলছে।

তদন্তকারীরা বলছেন, তিনি নারীদের অনাকাঙ্ক্ষিতভাবে নারীদের চুমু দিয়েছেন। তাদের শরীরের অন্যান্য অংশেও অযাচিতভাবে হাত দিয়েছেন কুমো। ওই নারীদের চেহারা এবং তাদের যৌন জীবন নিয়েও উত্তেজক মন্তব্য করেন তিনি। এছাড়া তিনি ভয়ের একটি কর্ম পরিবেশও সৃষ্টি করেছিলেন।

এদিকে, নিজের পদত্যাগের ঘোষণা দিয়ে কুমো বলেন, আমি একজন যোদ্ধা। আমি লড়াই চালিয়ে যাব, কারণ আমি বিশ্বাস করি এই বিতর্ক রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। আমি মনে করি এটি অন্যায় এবং অসত্য। আমার পক্ষ থেকে এখন সাহায্য করার সবচেয়ে ভালো উপায় হলো পদত্যাগ করা এবং সরকারকে শাসনকাজ পরিচালনা করতে দেওয়া।

উল্লেখ্য, নিউইয়র্ক হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের চতুর্থ জনবহুল রাজ্য। ২০১১ সাল এই রাজ্যের গভর্নর হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন কুমো। মঙ্গলবার তিনি নিজের পদত্যাগের কথা ঘোষণা করেন। এর আগে তার বিরুদ্ধে যৌন হয়রানি অভিযোগ পাঁচ মাস ধরে তদন্ত করা হয়। নিউইয়র্কে অ্যাটর্নি জেনারেল লেটিটিয়া জেমস চলতি মাসের শুরুতে সেই তদন্ত প্রতিবেদন করার পরই সরে দাঁড়ালেন কুমো। সূত্রঃ বিডি-প্রতিদিন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here