ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জাইর বোলসোনারো প্রতি রোববার সাংবাদিক সম্মেলন করেন। যথারীতি এই রোববারও তিনি সংবাদ সম্মেলনে হাজির হন ব্রাসিলিয়ার মেট্রোপলিটানো ক্যাথেড্রালে।

সেখানে দুর্নীতির সাথে তার স্ত্রীর জড়িত থাকার বিষয়ে প্রশ্ন করেন এক সাংবাদিক। এতে মেজাজ আর ধরে রাখতে পারেননি বোলসোনারো। তিনি সাংবাদিককে ঘুষি মারার হুমকি দেন। এরপর আর কোনো প্রশ্নে উত্তর কিংবা মন্তব্য না করেই সংবাদ সম্মেলন কক্ষ ত্যাগ করেন তিনি।

প্রশ্নকারী ওই সাংবাদিককে উদ্দেশ্য করে বোলসোনারো বলেন, ‘আমি ঘুষি দিয়ে আপনার মুখ বাঁকা করে দিতে চাই।’

এমন মন্তব্য করার পর উপস্থিত সাংবাদিকরা তার মন্তব্যের বিরোধিতা করেন। সংবাদ সম্মেলন বর্জনের হুমকি দেন। তার মন্তব্যের সমালোচনা শুরু করেন। এমন সময় তিনি আর কোনো মন্তব্য না করে সংবাদ সম্মেলন কক্ষ ত্যাগ করেন।

এই ঘটনার পর ব্রাজিলের বিভিন্ন পত্রপত্রিকা প্রেসিডেন্টের কাণ্ডজ্ঞান ও দায়বদ্ধতা নিয়েও প্রশ্ন তোলে। সমালোচনা করে প্রেসিডেন্টের। একজন জনগনের প্রতিনিধি হিসেবে বোলসোনারো গণমাধ্যম কর্মীদের সাথে এমন ব্যবহার করতে পারেন না।

সম্প্রতি একটি ম্যাগাজিনে বোলসোনারোর বন্ধু অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা ফ্যাব্রিসিও কুইরোজের  বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে বোলাসোনারোর ছেলের সাবেক এক উপদেষ্টার বিরুদ্ধেও। বর্তমানে দুর্নীতির এসব বিষয়ে তদন্তের মধ্যে আছেন সাবেক ওই পুলিশ কর্মকর্তা ও বর্তমানে সিনেটর বোলসোনারোর ছেলে  ।

তদন্তে দেখা গেছে দুর্নীতির সাথে বোলসোনারোর স্ত্রীর মিশেল বোলসোনারোও জড়িত আছেন। ২০১১ সাল থেকে ২০১৬ সালের মধ্যে মিশেল বোলসোনারোর ব্যাংক অ্যাকাউন্টে মোটা অঙ্কের টাকা পাঠিয়েছেন সাবেক ওই পুলিশ কর্মকর্তা। ওই প্রতিবেদক বোলসোনারোর কাছে এব্যাপারে জানতে চাইলেই ক্ষীপ্ত হন তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here