বেলারুশে চলমান সরকার বিরোধী বিক্ষোভে এবার যোগ দিয়েছে রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন কর্মীরা।সম্প্রতি দেশটিতে অনুষ্ঠেয় নির্বাচনে কারচুপি ও নানা অনৈতিক কর্মকান্ডের প্রতিবাদ জানাতে হাজার হাজার মানুষ রাজপথে নেমে বিক্ষোভ করছেন।তারা প্রেসিডেন্ট লুকাশেঙ্কোর বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ এনে পুন-নির্বাচনের দাবি জানিয়েছেন।এদিকে রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন কর্মীরা বিক্ষোভে যোগ দেয়ার কারন হিসেবে নির্বাচনের ফলাফলে সেন্সরশিপ আরোপের কথা বলেছেন।


অপরদিকে প্রেসিডেন্ট লুকাশেঙ্কো রাজধানী মিনস্কের একটা ট্র্যাক্টর কারখানায় পরিদর্শনে গেলে সেখানকার কর্মীরা তার বক্তৃতা শুনে আরও ক্ষুব্ধ হয়।

বিরোধীদের দাবি ভিত্তিহীন দাবি করে প্রেসিডেন্ট কারখানা কর্মীদের উদ্দেশে বলেন, আমরা সঠিক নির্বাচন করেছি। যতক্ষণ না আমাকে হত্যা করবেন, ততক্ষণ আর কোনো নির্বাচন হবে না‘। এতে কর্মীরা ক্ষুব্ধ হয়ে তার বিরুদ্ধে স্লোগান দিতে থাকে।

বিক্ষুব্ধ জনতার সাথে একাত্নতা ঘোষণা করে বিরোধী দলের প্রার্থী সভেতলানা তিখানভস্কায়া অন্তর্বর্তীকালীন সময়ে দেশের দায়িত্ব পালন করতে আগ্রহী বলে জানিয়েছেন।

গত ৯ আগস্টের নির্বাচনের পর থেকেই দেশটিতে ব্যাপক বিক্ষোভ চলছে। প্রেসিডেন্ট আলেক্সান্ডার লুকাশেঙ্কোর বিরুদ্ধে কারচুপির অভিযোগ উঠায় উত্তাল হয়ে উঠেছে বেলারুশের রাজধানী মিনস্ক। উল্লেখ্য,নির্বাচনে প্রেসিডেন্ট লুকাশেঙ্কো ৮০ দশমিক ০১ শতাংশ ও তার নিকটবর্তী বিরোধী দলের প্রার্থী সভেতলানা তিখানভস্কায়া ১০দশমিক ০১ শতাংশ ভোট পেয়েছেন।বর্তমান প্রেসিডেন্ট লুকাশেঙ্কো ১৯৯৪ সাল থেকে দেশটির ক্ষমতায় আছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here