অনলাইন ডেস্কঃ গর্ভধারণ থেকে শুরু করে সন্তান প্রসব, লালন-পালনসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে শারীরিক ও মানসিক সক্ষমতার পাশাপাশি দম্পতিদের দরকার হয় আর্থিক সঙ্গতির। এ কারণে অনেকে দম্পতির মধ্যেই দেখা দেয় সন্তান জন্মদানে অনীহা। দম্পতিদের সন্তান জন্মদানে উৎসাহিত করতে চীনের জিলিন প্রদেশে বিশেষ ঋণ দেয়ার পরিকল্পনা করেছে স্থানীয় প্রশাসন।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়, ওই প্রদেশে শিশু জন্মহার উল্লেখযোগ্য হারে কমে যাওয়ায় এবং বয়স্ক ব্যক্তির সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। বিয়ে এবং সন্তান জন্মদানে উৎসাহিত করতে বিবাহিত দম্পতিদের জিলিন প্রদেশের সরকার দুই লাখ ইয়েন (বাংলাদেশি মুদ্রায় ২৬ লাখ টাকার বেশি) ঋণ দেয়ার পরিকল্পনা করেছে।

তবে প্রাদেশিক সরকার কীভাবে ঋণ সহায়তা দেবে সে ব্যাপারে কোনো বিশদ বিবরণ দেননি। যদিও প্রস্তাবটিতে ঋণের জন্য সুদের হার উল্লেখ করা হয়েছে। কোনো দম্পতির সন্তানের সংখ্যার ওপর সুদের হার নির্ভর করবে বলে প্রস্তাবে উল্লেখ করা হয়েছে। এর আগে দম্পতিদের সন্তান জন্মদানে উদ্বুদ্ধ করতে বেতনসহ এক বছর মাতৃত্বকালীন ছুটি দেওয়ার পরিকল্পনা করেছিল চীনের উত্তরপশ্চিমাঞ্চলীয় শানসি প্রদেশ কর্তৃপক্ষ।

বিশ্বের সবচেয়ে জনবহুল দেশ চীনে বয়স্ক মানুষের সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় ২০১৬ সালে দীর্ঘ সময়ের এক সন্তান নীতি থেকে সরে এসে দুই সন্তান নীতি গ্রহণ করে দেশটির সরকার। কিন্তু তারপরও জন্মহার কমে যাওয়ায় চলতি বছরের মে মাসে চীন সরকার বিবাহিত দম্পতিদের তিন সন্তান নেয়ার বিষয়টি অনুমোদন করে। সূত্রঃ যমুনা নিউজ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here