অনলাইন ডেস্কঃ ঈদকে সামনে রেখে মুন্সীগঞ্জের শিমুলিয়াঘাটে ঘরমুখো মানুষ ও যানবাহনের সংখ্যা বাড়ছে। ঈদযাত্রায় ফেরিতে ভোগান্তি এড়াতে আগেভাগেই এ নৌরুট হয়ে গ্ৰামের বাড়ির পথে ছুটছে দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলগামী ঘরমুখো মানুষ।

বুধবার (২৭ এপ্রিল) সকাল থেকে শিমুলিয়া-বাংলাবাজার ও মাঝিকান্দি নৌ-রুটে পারাপারের অপেক্ষায় ঘাটে শত শত গাড়ির উপস্থিতি দেখা যায়। তবে যানবাহন পারাপারে নৌরুটে ২টি মিনি রোরো, ২টি কে টাইপ ও ২টি ডাম্পসহ মাত্র ৮টি ফেরি সচল থাকলেও বেগম রোকিয়া নামের একটি ফেরি বিকল হয়ে যাওয়ায় মেরামতের জন্য ওয়াকশপে পাঠানো হয়েছে। তবে আজ আরেকটি ফেরি যুক্ত হবে বলে বিআইডব্লিউটিসি জানিয়েছে।

বিপুল সংখ্যক যানবাহনের বিপরীতে ফেরির অপ্রতুলতায় পারপারে বেশি সময় লাগছে। এতে ঘাটে ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা করায় ভোগান্তিতে পড়েছেন যাত্রীরা। বিশেষ করে রোগী ও শিশুরা পড়েছেন বেশি বিপাকে। তবে এ বছর ভারী যানবাহন এ নৌরুটে পার হচ্ছে না। এদিকে লঞ্চে ও স্পিডবোটেও যাত্রী পারাপার হচ্ছে। ফেরির পাশাপাশি এ নৌরুটে ৮৩টি লঞ্চ ও ১৫৩ স্পিডবোট সচল রয়েছে বলে জানিয়েছেন বিআইডব্লিউটিএ।

ঈদযাত্রায় শিমুলিয়ায় যানবাহনের সংখ্যা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাড়ছে যাত্রীদের ভোগান্তি বাড়ছে। ঘাট সংশ্লিষ্টরা বলছেন, রাতে শিমুলিয়া-বাংলাবাজার রুটে ফেরি বন্ধ থাকায় সকালের দিকে যানবাহনের উপস্থিতি বেশি দেখা যায়। দুপুর থেকে চাপ কমে আসে।শিমুলিয়া ঘাটের সহকারী ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) ফায়সাল আহমেদ জানান, ঘাটে পারাপারের অপেক্ষায় বর্তমানে ২ শতাধিক যানবাহন রয়েছে। পর্যায়ক্রমে এসব যানবাহন পারাপার করা হবে। সূত্রঃ ইত্তেফাক

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here