অনলাইন ডেস্কঃ বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০-দলীয় জোট ছাড়ছে অন্যতম শরিক খেলাফত মজলিস। শুক্রবার বিকাল ৪টায় পুরানা পল্টনের একটি হোটেলে সংবাদ সম্মেলন করে জোট ছাড়ার ঘোষণা দেওয়া হতে পারে দলটির পক্ষ থেকে।

জানতে চাইলে খেলাফত মজলিসের আমির মাওলানা মুহাম্মদ ইসহাক বলেন, শুক্রবার মসলিসে শূরার বৈঠক ডাকা হয়েছে। সেখানে যে সিদ্ধান্ত হবে তা আমাদের মেনে চলতে হবে। সেখানে ২০-দলীয় জোটে থাকা না থাকা বিষয়ে আলোচনা হতেই পারে।
খেলাফত মজলিস যুগ্ম মহাসচিব অধ্যাপক আবদুল জলিল জানান, পল্টন কালভার্ট রোডের সিগাল রেস্টুরেন্টে খেলাফত মজলিসের পক্ষ থেকে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে। এই সংবাদ সম্মেলনের আগে দলের মজলিসে শূরার বৈঠক হবে।

খেলাফত মসলিসের দুই নেতা জানান, বৈঠকে দলটির মহাসচিব অধ্যাপক আহমদ আবদুল কাদেরের মুক্তি ও ২০-দলীয় জোট ছাড়া নিয়ে আলোচনা হবে।

মজলিসের একাধিক নেতার সঙ্গে আলাপকালে জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরেই বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০-দলীয় জোট নিষ্ক্রিয় ও অকার্যকর। আর এই জোটে থাকায় রাজনৈতিক মূল্যায়নও পায়নি মজলিস। সর্বশেষ হেফাজতের নেতাকর্মীদের ধরপাকড়ের ঘটনায় দলটির মহাসচিব অধ্যাপক আহমদ আবদুল কাদেরকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তিনি এখনও কারাগারে রয়েছেন। তাই খেলাফত মজলিসের জোট ত্যাগ করার পেছনে রাজনৈতিক কারণই প্রধান।

নেতারা জানান, রাষ্ট্রীয় চাপ ও আন্তর্জাতিক বাস্তবতায় ধর্মভিত্তিক রাজনীতি নিয়ে নতুন আঙ্গিকে চিন্তা করার প্রয়োজন রয়েছে। একই সঙ্গে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখেও পরিকল্পনায় পরিবর্তন আনার চিন্তাভাবনা চলছে মজলিসে।

এর আগে জোটের শরিক দলের যথাযথ মূল্যায়ন না করাসহ কয়েকটি কারণ দেখিয়ে গত ১৪ জুলাই বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০-দলীয় জোট ছেড়ে দেয় জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম।

প্রসঙ্গত ১৯৯৯ সালের ৬ জানুয়ারি জাতীয় পার্টি, জামায়াতে ইসলামী ও ইসলামী ঐক্যজোটকে সঙ্গে নিয়ে ‘চারদলীয় জোট’ গঠন করেছিল বিএনপি। পরে হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের নেতৃত্বাধীন জাতীয় পার্টি বেরিয়ে গেলে যুক্ত হয় নাজিউর রহমান মঞ্জুর বাংলাদেশ জাতীয় পার্টি (বিজেপি)।  পরে ২০১২ সালের ১৮ এপ্রিল নতুন ১২টি দলের সংযুক্তির মাধ্যমে নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিতে আন্দোলনে থাকা চারদলীয় জোট কলেবরে বেড়ে দাঁড়ায় ১৮-দলীয় জোটে। এর পর জোটের পরিধি বেড়ে দাঁড়ায় ২০ দলে।  তবে ২০-দলীয় জোট থেকে ইসলামী ঐক্যজোট, এনপিপি, ন্যাপ ও এনডিপি বেরিয়ে গেলেও একই নামে এসব দলের একাংশকে জোটে রেখে দেয় বিএনপি। জোট ছেড়ে যায় আন্দালিভ রহমান পার্থের বিজেপিও। সর্বশেষ জমিয়ত বেরিয়ে গেলেও একই নামে আরেকটি অংশ রয়েছে জোটে। সূত্রঃ যুগান্তর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here