অনলাইন ডেস্কঃ গত কয়েকদিন ধরেই যশোর অঞ্চলের ওপর দিয়ে বয়ে চলেছে তীব্র দাবদাহ। ফলে দিনের বেলায় স্বাভাবিক জীবনযাত্রা অচল হয়ে পড়েছে। বেশি সমস্যায় পড়েছেন খেটে খাওয়া মানুষ। তীব্র তাপে বাইরে বের হওয়া কষ্টকর হয়ে পড়েছে তাদের জন্য। এদিকে চলমান এই তাপপ্রবাহ প্রভাব ফেলেছে ঈদের বাজারেও। গরমের কারণে সাধারণ ক্রেতারা বাজারমুখী হচ্ছে না।

যশোর আবহাওয়া অফিস সূত্রে জানা গেছে, গত কয়েকদিন ধরেই যশোর অঞ্চলের তাপমাত্রা ৩৫ থেকে ৪০ ডিগ্রির মধ্যে ওঠানামা করেছে। যশোরে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৪০ দশমিক দুই ডিগ্রি সেলসিয়াস। এর আগের দিন সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৪০ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। তবে তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রির আশপাশে থাকলেও বাতাসের আর্দ্রতা ও অন্যান্য কারণে তা ৪৪ ডিগ্রিরও বেশি অনুভূত হচ্ছে।

এদিকে চলমান তীব্র তাপদাহের কারণে অনেক রোজাদার পানিশুণ্যতায় আক্রান্ত। ডায়রিয়া ও হিটস্ট্রোকে আক্রান্তের সংখ্যাও বেশ কিছুটা বেড়েছে। যশোরের ডেপুটি সিভিল সার্জন নাজমুস সাকিব রাসেল বলেন, গরমের এই সময়ে পানি শুন্যতা থেকে রক্ষা পেতে প্রচুর পানি পান করার পাশাপাশি সহজপ্রাপ্য মৌসুমী ফল বেশি করে খেতে হবে। ইফতারে ভাজা-পোড়া খাবার বাদ দেয়ারও পরামর্শ দিচ্ছেন তারা। সূত্রঃ বাংলাদেশ প্রতিদিন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here