কেউ যদি মাস্ক বা স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী ব্যবহার না করে তাদেরকে জরিমানা ও শাস্তি দেয়ার নতুন নিয়ম করা হয়েছে ইন্দোনেশিয়ায়। শাস্তি হিসেবে তাদেরকে উন্মুক্ত কফিনের ভিতরে এক থেকে ১০০ পর্যন্ত গণনা করতে দেয়া হবে। তাদের অন্যায় কাজ নিয়ে অনুশোচনা করতে বলা হবে কমপক্ষে এক মিনিট। খবর বিবিসির।

জাকার্তার এক কর্মকর্তা বলেন, করোনাভাইরাসে বিশ্বে প্রতিদিন বহু মানুষের মৃত্যু হচ্ছে। তারপরও মানুষ যদি সচেতন না হয় তাহলে বিষয়টা খুবই দুঃখজনক।

বিবিসি জানায়, মাস্কের প্রতি অনেক মানুষের অনীহা। এ সমস্যা নিরসনে কফিনে শোয়ানোর অভিনব কৌশলটি নিয়েছে জাকার্তার পূর্বাঞ্চলীয় কালিসারি এলাকার কর্তৃপক্ষ।

ইস্ট জাকার্তা পাবলিক অর্ডিন্যান্স এজেন্সির প্রধান বুধি নোভিয়ান সাংবাদিকদের জানান, তারা আসলে বোঝাতে চাইছেন যে, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হলে মৃত্যুঝুঁকি স্বাভাবিক কিছু নয়। তবে বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে সাজা দেয়ার অভিনব কায়দাটি নিয়ে।

কারণ, ইন্দোনেশিয়ায় প্রচলিত আইনে এ ধরনের কোনো সাজার কথা উল্লেখ নেই। সেজন্য গণহারে এ সাজা না দিয়ে প্রচলিত আইন অনুসারে জরিমানা করতে কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিয়েছেন ইস্ট জাকার্তা পাবলিক অর্ডিন্যান্স এজেন্সির প্রধান বুধি নোভিয়ান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here