করোনা ভাইরাসের চিকিৎসা সেবার নামে জালিয়াতি করায় মামলা হওয়ার পরপরই এক জেলা থেকে অন্য জেলায় আত্মগোপনের চেষ্টা চালান শাহেদ। ঢাকা থেকে তিনি কুমিল্লা, কক্সবাজার ও সাতক্ষীরায় গিয়েছেন।বুধবার (১৫ জুলাই) দুপুরে র‌্যাব সদর দপ্তরে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাবের মহাপরিচালক আবদুল্লাহ আল মামুন সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘গত সাত–আট দিনের মধ্যে শাহেদ একাধিকবার ঢাকায়ও এসেছেন। কখনো নিজস্ব গাড়িতে যাতায়াত করেছেন, কখনো ভাড়া গাড়ি, আবার কখনো ট্রাকে’।এছাড়াও কখনো পায়ে হেঁটেও এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় যাতায়াত করেছেন বলে জানান তিনি।



এ সময় সাংবাদিকরা মো. শাহেদ ওরফে শাহেদ করিম ভারতে চলে গিয়েছিলেন বলে গুঞ্জনের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, পালিয়ে যাওয়ার পর থেকেই র‌্যাব শাহেদ কে খুঁজছিল। যে জায়গায় তাঁর অবস্থান শনাক্ত করা গেছে, সেখান থেকেই তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

অস্ত্রসহ গ্রেফতার হওয়া শাহেদকে বিভিন্ন গণ্যমান্য ব্যক্তির সাথে ছবিতে দেখা যাওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে র‍্যাব মহাপরিচালক জানান, জিজ্ঞাসাবাদ শেষে বিস্তারিত তথ্য পাওয়া যাবে।

এর আগে রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান শাহেদকে সাতক্ষীরার ভারতীয় সিমান্ত এলাকা থেকে গ্রেফতার করে র‍্যাব। গ্রেফতারের পর সাতক্ষীরা থেকে হেলিকপ্টার যোগে শাহেদকে সকালে ঢাকায় নিয়ে আসা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here