নারায়ণগঞ্জ শহরের তল্লা এলাকার বাইতুস সালাত জামে মসজিদে বিস্ফোরণের ঘটনায় কেঁচো খুঁড়তে গিয়ে সাপ বেরিয়ে আসার মত ঘটনা ঘটেছে। তিতাসের তদন্ত কমিটির খোঁড়াখুঁড়িতে ওয়াসার পানির লাইন নষ্ট করে ফেলেন। ওই লাইন মেরামত করতে কর্মকর্তারা এসে দেখেন ৩৬টি বাড়ির পানির লাইন অবৈধভাবে নেয়া। অবৈধ হিসেবে ৩৬টি পানির লাইন কর্মকর্তারা বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছেন। তবে কোন বাড়ির লাইন এগুলো তা শনাক্ত করা যায়নি।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে ওয়াসার এক কর্মকর্তা বলেন, ৩৬টি লাইন এখানে অবৈধ। অবৈধ সংযোগ নেয়া হয়েছে প্রতিটি বাড়িতে। যার জন্য তাদের বাড়ির কেউ পানির সংযোগ ঠিক করার জন্য এগিয়ে আসেনি। সিটি করপোরেশনের প্রকৌশলী আজগর হোসেনকে এ বিষয়ে জানানো হয়েছে।

ওয়াসার এই কর্মকর্তা আরো বলেন, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের হাতে এখন ওয়াসার দায়িত্ব। সেজন্য সিটি করপোরেশনের প্রকৌশলী আজগর আলীকে বিষয়টি জানানো হয়েছে।

এদিকে গত দুই দিন ধরে পানির লাইন বিচ্ছিন্ন হয়ে দুর্ভোগ পোহালেও এসব কোনটি কার লাইন ভয়ে স্বীকার করেননি ব্যবহারকারীদের কেউই। মনে করা হচ্ছে, কেউ এগিয়ে আসেনি মসজিদের বিস্ফোরণের ঘটনায় অবৈধ পানির লাইন ব্যবহারকারীরা ফেঁসে যেতে পারেন সেই ভয়ে।

ওয়াসার শ্রমিকরা বলেন, তিতাস গ্যাসের শ্রমিকরা গত সোমবার থেকে তাদের গ্যাসের লাইন খুঁজতে গিয়ে আমাদের পানির লাইন নষ্ট করে ফেলেন। দেখা যায় ওই লাইন মেরামত করতে এসে ৩৬টি বাড়ির পানির লাইনে সমস্যা। কিন্তু কেউ জানাতে আসেনি এসব লাইনগুলো কাদের বাড়িতে গেছে। তাই এগুলো বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের প্রকৌশলী আজগর আলীর সাথে যোগাযোগ করা হলে বলেন, আমরা খোঁজখবর নিচ্ছি লাইনগুলোর বিষয়ে। এলাকার লোক অনেকে বলছে অবৈধ আবার অনেকে বলছে লাইনগুলো বৈধ। যার কারণে বৈধ নাকি অবৈধ চেক না করে বলা যাবে না। কাটা লাইনগুলো সংযোগ করে দেয়া হয়েছে বৈধ-অবৈধর বিষয়টি না তুলে। চেক করব আমরা সবগুলো লাইন ও বিচ্ছিন্ন করে দেব অবৈধ লাইনগুলো।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here