শুক্রবার (০৪ সেপ্টেম্বর) রাতে এশার নামাজ চলাকালীন সময়ে নারায়ণগঞ্জ শহরের খানপুর তল্লা এলাকার মসজিদে একটি এসিও বিস্ফোরিত হয় নি।গ্যাস লাইনের লিকেজ থেকেই ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে বলে দাবি ফায়ার সার্ভিস তদন্ত কমিটির।ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের উপ-সহকারী পরিচালক আবদুল্লাহ আল আরেফিন গণমাধ্যমকে বিষয়টি জানান।

আরো পড়ুন:১.-নারায়ণগঞ্জে বিস্ফোরণের ঘটনা তদন্ত হচ্ছে: প্রধানমন্ত্রী
২. বিকিনিতে প্রিয়াঙ্কার উত্তাপ

তিনি জানান,শুক্রবার (০৪ সেপ্টেম্বর) রাত পৌনে ৯টায় ওই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এতে ইমাম ও মুয়াজ্জিন, ফটো সাংবাদিক, জেলা প্রশাসনের একজন কর্মচারীসহ প্রায় ৪৫ জন আহত হয়। তাদের মধ্যে ৩৭ জনকে রাজধানীর শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইন্সটিটিউটে ভর্তি করা হয়।এর মধ্যে এখন পর্যন্ত ২৪ জনের মৃত্যু হয়েছে।মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিটিউটের সমন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন।


ফায়ার সার্ভিসের আরেক উপ পরিচালক নূর হাসান আহমেদ বলেন, ‘এসির যটুকু দেখলাম তাতে এসির বাইরের প্লাস্টিকের আবরণই শুধু পুড়েছে আর কিছু পোড়েনি।গ্যাসের লিকেজ আর বিদ্যুৎয়ের স্পার্কিং থেকে বিস্ফোরণ হয়েছে।’


এদিকে, এ ঘটনার পর থেকেই নারায়ণগঞ্জের তল্লা এলাকার গ্যাস লাইন সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে আছে।এতে করে চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন এলাকাবাসী।তবে, কবে নাগাদ গ্যাস সংযোগ দেয়া হবে, তা বলতে পারেননি তিতাসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here