অনলাইন ডেস্কঃ দুই দশকের মধ্যে প্রথমবারের মতো বৈদেশিক সহায়তা ছাড়াই খসড়া বাজেট প্রয়ণয় করেছে আফগানিস্তানের তালেবানের অন্তর্বর্তী সরকারের অর্থ মন্ত্রণালয়। তালেবানের এক মুখপাত্রের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা এএফপি শুক্রবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

তালেবান দ্বিতীয় দফায় ক্ষমতা দখলের পর থেকেই চরম অর্থনৈতিক সংকটের কবলে পড়েছে তালেবান। দেশটিতে সৃষ্টি হয়েছে চরম মানবিক বিপর্যয়। এর মধ্যেই এই বাজেট প্রণয়নের খবর সামনে এলো।

তালেবানের অর্থ মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আহমদ ওয়ালি হাকমল খড়সা বাজেটের বিস্তারিত জানাননি। ২০২২ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত ওই বাজেট কার্যকর হবে বলে জানা গেছে। তবে প্রকাশ করার আগে বাজেটটি মন্ত্রিসভায় অনুমোদনের জন্য পাঠানো হবে বলে এএফপি জানিয়েছে।

রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ওয়ালি বলেন, আমরা আমাদের অভ্যন্তরীণ রাজস্ব থেকে বাজেটে অর্থায়ন করার চেষ্টা করছি, আমাদের বিশ্বাস আমরা সামাল দিতে পারব।

চলতি বছরের আগস্ট মাসে তালেবান দ্বিতীয় দফায় ক্ষমতা দখলের পর আফগানিস্তানে বৈদেশিক সাহায্য বন্ধ হয়ে যায়। এছাড়া পশ্চিমা দেশগুলোও আফগানিস্তানের বাইরে থাকা বিলিয়ন ডলারের আফগান সম্পদ আটকে রেখেছে।

এদিকে, সরকারি চাকরিজীবীদের আটকে থাকা কয়েকমাসের বেতনের ব্যাপারে হাকমল বলেছেন, চলতি বছরের শেষের মধ্যেই সব বকেয়া বেতন শোধ করে দেওয়ার জন্য আমরা সর্বোচ্চ চেষ্টা করছি।

তবে সরকারি চাকরিজীবীদের জন্য নতুন পে স্কেল করা হচ্ছে বলেও সতর্ক করেছেন তিনি। সূত্রঃ যুগান্তর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here