লাতিন আমেরিকান রাষ্ট্র পেরুর রাজধানী লিমায় একটি নাইটক্লাবে শনিবার রাতে অভিযান চালায় পুলিশমহামারী করোনার মধ্যেও লকডাউন নীতিমালা অমান্য করে নাইটক্লাবটি চালু রাখায় শনিবারে (২২ই আগস্ট) অভিযানটি চালায় পুলিশ। এ সময়ে হুড়োহুড়ি করে পালাতে গেলে পদদলিত হয়ে মৃত্যু হয় অন্তত ১৩ জনের।

পুলিশ ও বিভিন্ন সরকারি কর্মকর্তারা জানায়, গত শনিবার (২২ই আগস্ট) রাতে রাজধানী লিমার থমাস রেস্তোরাঁর দ্বিতীয় তলায় পার্টি হচ্ছিল। পুলিশ এটি বন্ধের জন্য অভিযান চালালে প্রায় ১২০ জন হুড়োহুড়ি করে পালানোর চেষ্টা করে। এ সময় তিন পুলিশ সদস্যসহ ছয়জন আহত হয়।

ন্যাশনাল পুলিশের সদস্য স্থানীয় একটি রেডিও চ্যানেলকে জানায়, এ পরিস্থিতিতে মানুষজন যখন আতঙ্কে একই পথ দিয়ে বের হওয়ার চেষ্টা করছিল, তখন হুড়োহুড়ি শুরু হয় আর এ হতাহতের ঘটনাটি ঘটে।

অভিযান শেষে ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ কমপক্ষে ২৩ জনকে আটক করেছে , জানিয়েছে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

এছাড়াও পেরুর নারীবিষয়ক মন্ত্রী রোজারিও সাসিয়েস্তা এধরনের নাইটক্লাবগুলোর চরম নিন্দা জানিয়ে বলেছেন, এরকমটা হওয়া উচিত হয়নি। আমরা একটি মহামারি ও স্বাস্থ্যঝুঁকির মধ্যে রয়েছি। নাইটক্লাবটির মালিকদের সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি করছি।

গত মার্চে পেরুতে সকল প্রকার বার ও নাইটক্লাব বন্ধের নির্দেশ দেয়া হয়। আর এদিকে লাতিন আমেরিকার দেশগুলোতে এখন দ্বিতীয় দফায় মহামারী কোভিড-১৯ সংক্রমণ চলছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here