অনলাইন ডেস্কঃ বিশ্বজুড়ে আলোড়ন সৃষ্টিকারী স্পাইওয়্যার পেগাসাসের নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ইসরাইলি সাইবার গোয়েন্দা ও নিরাপত্তা প্রযুক্তিবিষয়ক সংস্থার (এনএসও) সঙ্গে ইসরাইল সরকারের কোনো সম্পর্ক নেই বলে শনিবার দাবি করেছেন দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইয়ার লাপিড। বার্তা সংস্থা রয়টার্স রোববার এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে।

শনিবার জেরুজালেমে এক সংবাদ সম্মেলনে ইয়ার লাপিড জানান, এনএসও একটি বেসরকারি সংস্থা। এই সংস্থা ইসরাইল সরকারের কোনো প্রকল্প নয়। তাই ইসরাইল সরকারের নীতির সঙ্গে এনএসওর কোনো সম্পর্ক নেই।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরও জানান, বিশ্বে অন্য কোনো দেশে সাইবার যুদ্ধের ব্যাপারে ইসরাইলের মতো কঠোর নীতিমালা রয়েছে বলে তিনি মনে করেন না। এ নীতিমালা বাস্তবায়ন অব্যাহত রাখবেন বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন ইসরাইলি মন্ত্রী।

গত বুধবার এনএসওর তৈরি স্পাইওয়্যার পেগাসাসের মাধ্যমে বিশ্বজুড়ে মানবাধিকারকর্মী, সাংবাদিক, আইনজীবী ও রাজনীতিকসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের ফোনে নজরদারি চালানোর ঘটনা প্রমাণিত হওয়ায়  সংস্থাটিকে কালো তালিকাভুক্ত করার ঘোষণা দেয় যুক্তরাষ্ট্র। যুক্তরাষ্ট্রের ওই ঘোষণার পর এই প্রথম ইসরাইলের কোনো শীর্ষস্থানীয় মন্ত্রী প্রকাশ্যে সংস্থাটিকে নিয়ে মন্তব্য করল।

পেগাসাস স্পাইওয়্যার তৈরি করে বিভিন্ন দেশের সরকারের কাছে বিক্রির অভিযোগ উঠেছিল এনএসও’র বিরুদ্ধে।

২০১৯ সালে এই স্পাইওয়্যারের বিষয়টি সংবাদ শিরোনামে এসেছিল। ২০১৬ সাল থেকে এনএসওর গ্রাহকেরা এসব নম্বরে আড়ি পেতেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

তবে ২০১৪ সালে পেগাসাসের প্রথম ব্যবহার করা হয়েছিল।  এক আরব মানবাধিকার কর্মীর আইফোন হ্যাক করার সময় এই সফটওয়ার ব্যবহার করা হয়েছিল। এরই জেরে আইফোন প্রস্তুতকারক সংস্থা অ্যাপল ঘটনার কয়েক দিন পর তাদের অপারেটিং সিস্টেম আপডেট প্রকাশ করেছিল। সূত্রঃ যুগান্তর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here