অনলাইন ডেস্কঃ দেশের মাটিতে অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে টি-টোয়েন্টি সিরিজটা দুর্দান্ত কেটেছে বাংলাদেশের। ঐতিহাসিক এই সিরিজ জয়ে সিরিজসেরা হয়েছেন সাকিব আল হাসান। তার পুরস্কার হিসেবে টি-টোয়েন্টি অলরাউন্ডারদের র‌্যাংকিংয়ে শীর্ষে ফিরলেন তিনি। ২০১৭ সালের পর প্রথমবার টি-টোয়েন্টি অলরাউন্ডারদের র‍্যাংকিংয়ের শীর্ষে উঠে এসেছেন সাকিব। যার ফলে আফগানিস্তানের মোহাম্মদ নবীকে হটিয়ে ক্রিকেটের এই ক্ষুদে সংস্করণে এখন এক নম্বর অলরাউন্ডার তিনি।

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সদ্য শেষ হওয়া এই সিরিজে বাংলাদেশ দলের আরেকজনও ছিলেন অপ্রতিরোধ্য। তিনি হলেন ‘কাটার মাস্টার’ মুস্তাফিজুর রহমান। অস্ট্রেলিয়া সিরিজে দুর্দান্ত বোলিং করেছেন তিনি। ওভারপ্রতি মাত্র ৩.৫২ রান দিয়ে ৮.৫৭ গড়ে ৭ উইকেট নেন এই বাঁহাতি পেসার। যার পুরস্কারস্বরূপ টি-টোয়েন্টি র‌্যাংকিংয়ে ২০ ধাপ এগিয়ে বোলারদের শীর্ষ দশে ঢুকে গেছেন মুস্তাফিজুর রহমানও। ২০১৮ সালের পর এই প্রথম টি-টোয়েন্টি বোলারদের র‍্যাংকিংয়ে শীর্ষ দশে জায়গা করে নিলেন তিনি।

একটা সময় টি-টোয়েন্টি অলরাউন্ডারদের শীর্ষে থাকলেও ২০১৭ সালের পর সাকিব নেমে গিয়েছিলেন শীর্ষস্থান থেকে। এরপর ২০১৯ নিষিদ্ধ হওয়ার পর র‍্যাংকিং হারান। গত বছর আবার মাঠে ফিরেছেন। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজেও ভালো করেছিলেন, তবে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে পারফরম্যান্সই তাকে আবার নিয়ে এসেছে শীর্ষে। মোহাম্মদ নবীকে টপকে একে উঠে এসেছেন সাকিব, তবে দুজনের ব্যবধান মাত্র ১ পয়েন্ট।

অন্যদিকে, অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজে শেষ চার ম্যাচের পারফরম্যান্স দিয়ে র‌্যাঙ্কিংয়ে এতটা উন্নতি করলেন ‘কাটার মাস্টার’ মুস্তাফিজুর রহমান। মোট ৬১৯ রেটিং পয়েন্ট পেয়েছেন মুস্তাফিজ। দক্ষিণ আফ্রিকার স্পিনার তাবরিজ শামসি ৭৯২ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে টি-টোয়েন্টি বোলারদের র‌্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষে রয়েছেন।

বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া টি-টোয়েন্টি সিরিজের শেষ চার ম্যাচ এবং ইংল্যান্ড-ভারত সিরিজের প্রথম টেস্টের পারফরম্যান্সের ভিত্তিতে গতকাল বুধবার (১১ আগস্ট) র‌্যাংকিংয়ের সাপ্তাহিক হালনাগাদ প্রকাশ করেছে আইসিসি। এতে দেখা গেছে, অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজের শেষ ম্যাচে দারুণ বল করে ২৬ ধাপ এগিয়ে মোহাম্মদ সাইফ উদ্দিন আছেন ৪৩ নম্বরে। নাসুম আহমেদ প্রথমবারের মতো শীর্ষ ১০০তে ঢুকেছেন। ১০৩ ধাপ এগিয়ে আছেন ৬৬ নম্বরে। সূত্রঃ বিডি-প্রতিদিন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here