অনলাইন ডেস্কঃ জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে গণপরিবহণ ও পণ্যবাহী যানবাহন বন্ধের ঘোষণা দিয়েছেন এই খাতের মালিক-শ্রমিকেরা। তারা বলছেন, জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির কারণে বিদ্যমান ভাড়ায় গাড়ি চালিয়ে তারা পোষাতে পারছেন না।  আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা না দিলেও আগামীকাল শুক্রবার সকাল ৬টা থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য এসব পরিবহণ বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তারা।

বুধবার মধ্যরাত থেকে ডিজেলের দাম লিটারপ্রতি ১৫ টাকা বাড়িয়েছে সরকার। পরিবহন সূত্রগুলো বলছে, জ্বালানি তেলের নতুন মূল্যহার কার্যকর হওয়ার পর পরিবহণ খাতের বিভিন্ন সংগঠনের মালিক-শ্রমিকেরা নিজেদের মধ্যে বৈঠক করেছে।  এসব বৈঠক থেকেই ভাড়া বৃদ্ধি না করার ঘোষণা দেওয়ার আগ পর্যন্ত পরিবহন বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

কেন পরিবহণ শ্রমিক-মালিকরা বাস-ট্রাক বন্ধ করছেন এ বিষয়ে তথ্যানুসন্ধানে জানা গেছে, পরিবহণের অধিকাংশ সংগঠনের নেতারা সরকারপন্থী রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত। তাই তারা ধর্মঘটের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিতে চান না। অনানুষ্ঠানিকভাবে বাস, ট্রাকসহ বাণিজ্যিক যানবাহন না চালানোর সিদ্ধান্ত নেন তারা।
বাংলাদেশ ট্রাক-কাভার্ডভ্যান মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক হোসেন মো. মজুমদার গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, যেভাবে ডিজেলের দাম বাড়ানো হয়েছে, তাতে পরিবহণ চালানো আমাদের পক্ষে সম্ভব নয়।  হঠাৎ ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধির কোনো যৌক্তিকতা নেই।

পরিবহণ সংশ্লিষ্টরা বলছেন, বিআরটিএসহ সরকারের বিভিন্ন দপ্তরের সঙ্গে বৈঠক করে দাবি-দাওয়া তুলে ধরবেন তারা। ভাড়া সমন্বয়ের আশ্বাস পেলে ধর্মঘট তুলে নেওয়া হবে। আজ কিংবা আগামীকাল শুক্রবার বিআরটিএর সঙ্গে বৈঠক হতে পারে বলে পরিবহন মালিক-শ্রমিক নেতারা জানিয়েছেন। সূত্রঃ যুগান্তর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here