লালমনিরহাট জেলার হাতীবান্ধা উপজেলায় জামাইয়ের বিরুদ্ধে পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করেছেন শাশুড়ি।  শাশুড়ির দায়ের করা মামলায় জামাইকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। জামাই ইকবাল হোসেন মান্নাকে গতকাল জেল-হাজতে প্রেরণ করেন হাতীবান্ধা থানা পুলিশ।

গত শনিবার রাতে নীলফামারী জেলার জলঢাকা থানা পুলিশের সহযোগিতায় জামাই ইকবাল হোসেন মান্নাকে গ্রেফতার করেন হাতীবান্ধা থানা পুলিশ।

হাতীবান্ধা থানার ওসি ওমর ফারুক জানান, হাতীবান্ধা উপজেলার টংভাঙ্গা ইউনিয়নের বাড়াইপাড়া গ্রামের মানিক মিয়ার পুত্র ইকবাল হোসেন মান্নানের (৩০) সাথে পাশের সির্ন্দুনা ইউনিয়নের এক মেয়ের প্রথমে প্রেম তারপর বিয়ে হয়। তাদের সংসার শুরুর বেশ কিছু দিন পর তাদের মধ্যে দাম্পত্যকলহ শুরু হয়। ৩ মাস ধরে ইকবাল হোসেন মান্নানের বউ তার বাবার বাড়িতে অবস্থান করছেন। এই সময়ে ইকবাল হোসেন মান্না তার স্ত্রীর সাথে বিভিন্ন সময় তোলা অন্তরঙ্গ কিছু ছবি বিভিন্নজনের ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারে দেয়।

এ ঘটনার প্রতিকার চেয়ে জামাই ইকবাল হোসেন মান্নানের শাশুড়ি বাদী হয়ে হাতীবান্ধা থানায় তার বিরুদ্ধে পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনে একটি মামলা দায়ের করেন। পরে পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শনিবার রাতে পাশ্ববর্তী নীলফামারী জেলার জলঢাকা উপজেলা থেকে ইকবাল হোসেন মান্নাকে গ্রেফতার করেন।

গ্রেফতারকৃত জামাইকে রোববার জেল-হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে বলে জানান হাতীবান্ধা থানার ওসি ওমর ফারুক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here