অনলাইন ডেস্কঃ গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে আবারো জাতীয় ঐক্যের আহ্বান জানিয়ে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আজ এই সরকারের যে স্বৈরাচারী ব্যবস্থা আছে, এই ব্যবস্থাকে রুখে দেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্বকে অক্ষুণ্ণ রাখতে এবং গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করার জন্য সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন জাতীয় ঐক্য।

আমরা একাত্তর সনে জনযুদ্ধ করেছি। এবার হবে গণযুদ্ধ। এই যুদ্ধের মাধ্যমে জনগণের অধিকার আদায় করতে হবে। আমাদের এই আন্দোলন কোনো ব্যক্তির বিরুদ্ধে নয়, কোনো গোষ্ঠির বিরুদ্ধে নয়। জনগণের অধিকার আদায়ের জন্য আমরা আন্দোলন করছি।

এই সরকারকে রেখে দেশে অবাধ সুষ্ঠু নির্বাচন হবে না উল্লেখ করে তিনি বলেন, জাতীয় সমস্যাকে দলীয়ভাবে চিন্তা করলে সমাধান খুঁজে পাওয়া যাবে না। জাতীয় সমস্যা জাতীয়ভাবে সমাধানে জন্য জাতীয় সরকার দরকার।

রাষ্ট্র সংস্কার ও সাংবিধানিক সংস্কারের জন্য জাতীয় সরকার করে নিরপেক্ষ নির্বাচনের ব্যবস্থা করতে হবে। যারা জাতীয় সরকারে বিশ্বাস করে তাদেরকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে এই সরকারের পতনে আন্দোলন শুরু করতে হবে। জনগণ মাঠে নামলে এই সরকার এক মুহূর্ত ক্ষমতায় থাকতে পারবে না।

গণফোরামের সভাপতি মোস্তফা মোহসীন মন্টুর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক সুব্রত চৌধুরীর পরিচালনায় এই আলোচনা সভায় জাসদের শরীফ নুরুল আম্বিয়া, রাষ্ট্র বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক দিলারা চৌধুরী, বিকল্পধারার নুরুল আমিন ব্যাপারী, নাগরিক ঐক্যের শহীদুল্লাহ কায়সার, পিপলস পার্টির বাবুল সরদার চাখারীসহ গণফোরামের নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।

তিনি বলেন, আমরা যারা গণতন্ত্রের জন্য লড়াই করছি, আমাদের সকলের দায়িত্ব হচ্ছে একটা জাতীয় ঐক্য গড়ে তুলে এই দেশকে ফ্যাসিবাদীর হাত থেকে রক্ষা করে গণতন্ত্রকে পুনরুদ্ধার করা, দেশের মানুষের অধিকারকে ফিরিয়ে দেয়া এবং নিরপেক্ষ একটি সরকারের মধ্য দিয়ে জনগণের পার্লামেন্ট গঠন করা। আসুন আমরা সকলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে দেশের গণতন্ত্রকে ‍পুনরুদ্ধার করি।

মঙ্গলবার গণফোরাম আয়োজিত ইফতার অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

২০ দলীয় জোটের বাইরে বিরোধী রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দের ইফতারে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল, জাসদ (নুরুল আম্বিয়া), নাগরিক ঐক্য, বিকল্পধারাসহ কয়েকটি রাজনৈতিক দলের নেতারা এই আলোচনায় অংশ নেন।

বাংলা মোটরে রুপায়ন ট্রেড সেন্টারে ওয়ারফল রেস্তোরাঁয় ‘নির্দলীয় সরকারের অধীনে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের লক্ষ্যে জাতীয় ঐক্য গড়ে তুলন’ শীর্ষক এই আলোচনা সভা হয়।

জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জেএসডির সভাপতি আসম আবদুর রব বলেন, জনগণ পরিষ্কারভাবে জানতে চায় কোনো গোজামিল নয়। আমরা কী করতে চাই, কিভাবে করতে চাই তা পরিষ্কারভাবে বলতে হবে। আসলে আমরা মাঠে নামলে জনগণ মাঠে নামবে। সূত্রঃ নয়া দিগন্ত

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here