অনলাইন ডেস্কঃ চট্টগ্রামে স্বামীর নির্যাতনে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর মৃত্যুর অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ঘটনায় ওই তরুণীর স্বামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

নিহতের নাম মাহমুদা খানম ওরফে আঁখি। তিনি নগরের একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের এলএলবির শিক্ষার্থী ছিলেন।

মাহমুদার স্বামীর নাম আনিসুল ইসলাম। তিনি পেশায় আইনজীবী।

এ ঘটনায় নিহতের বড় ভাই নিজাম উদ্দিন বাদী হয়ে রোববার রাতে নগরের চাঁদগাঁও থানায় একটি মামলা করেন। মামলায় আনিসুলকে আসামি করা হয়েছে।

নিহতের পরিবার জানায়, দুই বছর আগে আনিসুলের সঙ্গে মাহমুদার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই তাকে নির্যাতন করত তার স্বামী। রোববার নির্যাতনের একপর্যায়ে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন মাহমুদা। তাকে হাসপাতালে নেওয়া হলে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক।

চাঁদগাঁও থানার ওসি মইনুর রহমান গণমাধ্যমকে বলেন, আসামি আনিসুলকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাকে আজ দুপুরে আদালতে হাজির করে রিমান্ডের আবেদন করা হবে।

তিনি বলেন, চিকিৎসকের সঙ্গে কথা বলে প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত হওয়া গেছে যে, মাহমুদার খাদ্যনালি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। যার কারণে তার মৃত্যু হয়েছে। নির্যাতনের কারণে এমনটি হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।

মাহমুদার মৃত্যুর ঘটনায় রোববার রাত ৯টার দিকে নগরের একটি বেসরকারি হাসপাতালের সামনে থেকে আনিসুলকে গ্রেফতার করে পাঁচলাইশ থানা পুলিশ।

মামলার বাদী নিজামের অভিযোগ, যৌতুকের জন্য স্বামী আনিসুলের নির্যাতনে মাহমুদা নিহত হয়েছে।

ওসি মইনুর রহমান বলেন, ময়নাতদন্তের জন্য মাহমুদার লাশ চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের মর্গে পাঠানো হয়েছে। আজ দুপুরে ময়নাতদন্ত হওয়ার কথা রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত হওয়া গেছে, নির্যাতনে খাদ্যনালি ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে মাহমুদার মৃত্যু হয়েছে। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর তার মৃত্যুর কারণ আরও স্পষ্ট হবে।

এ ঘটনায় আসামি আনিসুলকে আরও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতে রিমান্ডের আবেদন করা হবে বলে জানান তিনি। সূত্রঃ যুগান্তর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here