অনলাইন ডেস্কঃ ভারতীয় টিভির সারেগামাপা থেকে জনপ্রিয়তা পাওয়া গায়ক নোবেল। তবে প্রতিযোগিতাটি থেকে উঠে আসার পর গানের চেয়ে বিতর্কিত কর্মকাণ্ড নিয়েই বেশি আলোচনায় তিনি। নোবেল মানেই যেনো বিতর্ক, যে বিতর্কের শেষ কোথায় কেউ জানে না।

নোবেল এবার আলোচনায় এলেন নতুন করে। তাকে ডিভোর্স লেটার (তালাকের নোটিশ) পাঠিয়েছেন স্ত্রী মেহরুবা সালসাবিল। গত ১১ সেপ্টেম্বর এই তালাকনামা নোবেলের ঠিকানায় পাঠানো হয়েছে বলে গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন সালসাবিল।

মেহরুবা সালসাবিল সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, ‘নোবেল মানসিকভাবে চরম অসুস্থ, চরম মাদকাসক্ত ও নারীর নেশা রয়েছে। আমাকে নানাভাবে নির্যাতন করতো, এসবের প্রমাণ আমার কাছে আছে। এসব কারণে তাকে ডিভোর্সের সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

এর আগে নোবেলের নির্যাতনের কথা উল্লেখ করে সালসাবিল তার ফেসবুক স্ট্যাটাসে লিখেছিলেন, ‘এমন একটি দেশে জন্মগ্রহণ করে সত্যি আমি লজ্জিত, যে দেশে নারী নির্যাতন ছেলে মানুষের পুরুষত্ব প্রমাণের মাপকাঠি। এমনকি যে দেশে একজন স্বামীর কাছে স্ত্রী নিরাপদ না। গোপনে ধারণকৃত পার্সোনাল মোমেন্টের ভিডিও দিয়ে স্ত্রীকে খুব সহজেই ব্ল্যাকমেইল করে রাখা যায় এবং তা সম্পর্কে বাংলাদেশ সাইবার ক্রাইমও অবহিত।’

গত ২৫ আগস্ট নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে একটি ছবি প্রকাশ করেন নোবেল। তাতে দেখা যাচ্ছে- দুর্গম পার্বত্য অঞ্চলের নাফাকুম জলপ্রপাতের পাশে এক নারীর সঙ্গে বসে আছেন নোবেল। তিনি ঠিক কী করছিলেন, সেটি একেবারে স্পষ্ট না হলেও গাঁজার কলকি টানছেন বলেই মনে করতে পারেন নেটিজেনরা।

এদিকে বিচ্ছেদের বিষয়টি ফেসবুকে মঈনুল আহসান নোবেলও জানিয়েছেন। তিনি ফেসবুকে শুধু ‘ডিভোর্স’ লিখে স্ট্যাটাস দিয়েছেন।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের ১৫ নভেম্বর মেহরুবা সালসাবিলের সঙ্গে বিয়ে হয় মঈনুল আহসান নোবেলের। সূত্রঃ যমুনা নিউজ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here